দেশনিউজ

দেড় বছরে ধরে শৌচাগারে বন্দি, নির্মম ঘটনায় গ্রেফতার স্বামী

Advertisement

টানা দেড় বছর নাকি শৌচাগারে বন্দী। হরিয়ানা রাজ্যের পানিপথ জেলার রিশপুর গ্রামের ৩৫ বছরের ওই গৃহবধূর এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই চমকে উঠেছে মহিলা ও শিশুকল্যাণ দপ্তরের কর্মীরা। তদন্ত করে জানা গিয়েছে ১৭ বছর আগে ৩৫ বছরের ওই মহিলার সঙ্গে স্বামী নরেশ কুমারের বিয়ে হয়, এমনকি তাঁদের তিনটি সন্তানও রয়েছে। বড় মেয়ের বয়স পনেরো।

দুই ছেলের এজ জনের বয়স ১১ ও অন্য জনের বয়স ১৩। কিন্তু কেন এভাবে দিনের পর দিন শৌচাগারে আটকে রাখা হয়েছে তা জিজ্ঞেস করতেই ওই মহিলার স্বামী জানান ওই মহিলা নাকি মানসিক রোগী। পরিস্থিতি সামাল দিতেই তাঁকে এতোদিন ধরে আটকে রাখা হয়েছিল। অন্য দিকে জেলার মহিলা সুরক্ষা আধিকারিক রজনী গুপ্তা ওই মহিলার এই অবস্থার খবর পেতেই এদিন পুলিশকর্মীদের নিয়ে ওই ব্যক্তির বাড়ি যান। পরে সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

জানা গিয়েছে মানসিক ভাবে ভারসাম্য হওয়ার কারণেই তিনি গত দেড় বছর ধরে একটি খুপচি আকারের দুর্গন্ধময় শৌচাগারে বন্দী ছিলেন। ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে এর পাশাপাশি ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৮এ ও ৩৪২ ধারায় অভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে। এমনকি ওই ব্যাক্তিকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Tags

Related Articles

Back to top button