×
সৌন্দর্যজীবনযাপন

Skin Care Tips: ত্বকে শক্ত, টানটান করতে চান? কুচকে যাওয়া ত্বকের সমস্যা দূর করতে এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন

Advertisement

আমাদের বয়স বাড়ার সাথে সাথে শারীরিক অনেক উপসর্গও দেখা দিতে শুরু করে। সঠিক সময় এর প্রতিকার না করলে পরে বিপদ বাড়তে পারে অনেক।স্বাস্থ্যের পাশাপাশি বার্ধক্যের ছাপও আমাদের ত্বকে স্পষ্ট দেখা দিতে শুরু করে বয়সের সাথে সাথেই। যদিও প্রত্যেকেরই আকাঙ্খা থাকে যে তাদের ত্বক সুন্দর এবং তরুণ থাকুক, তবে কখনও কখনও বয়স বৃদ্ধির কারণে ত্বকের যৌবনতা ধরে রাখা কঠিন হয়ে পড়ে। বয়স বৃদ্ধির সাথে আলগা ত্বক একটি সাধারণ সমস্যা। এমন পরিস্থিতিতে, আজ এই নিবন্ধের মাধ্যমে, আমরা এমন কিছু স্কিনকেয়ার টিপস শেয়ার করছি যা দৃঢ়, টাইট ত্বকের জন্য প্রাকৃতিক প্রতিকার গ্রহণ করে ত্বকে টান আনতে ব্যবহার করা যেতে পারে। ত্বকের আঁটসাঁটতার জন্য কী প্রয়োগ করতে হবে এবং আপনার ডায়েটে কী অন্তর্ভুক্ত করবেন, এখানে বিভিন্ন পয়েন্টের মাধ্যমে বুঝুন।

Advertisement

ত্বক টানটান করতে কোন ফেসিয়াল করবেন?

মুলতানি মাটি ব্যবহার করে আলগা ত্বকের চিকিৎসা করা যায়। মরা চামড়া দূর করার পাশাপাশি এটি ত্বককে গভীরভাবে পরিষ্কার করে। মুলতানি মাটি ত্বককে সতেজ ও উজ্জ্বল রাখতেও কাজ করে। ত্বক টানটান করতে মুলতানি মাটির ফেসপ্যাক ব্যবহার করা যেতে পারে। প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের আলগা ভাব দূর করতে চাইলে প্রথমে বাদামের তেল দিয়ে মুখে ম্যাসাজ করুন, তারপর মুলতানি মাটির প্যাক লাগান।

Advertisement

কিভাবে ফেসপ্যাক তৈরি করবেন (বাড়িতে ত্বক শক্ত করার সেরা ফেসপ্যাক)

এক চামচ মুলতানি মাটি নিন, তাতে দুই চামচ গোলাপ জল এবং এক চামচ মধু মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার এই মিশ্রণটি আপনার ত্বকে ভালো করে লাগান এবং শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

কীভাবে মুখের ত্বকের আলগা ভাব থেকে মুক্তি পাবেন?

বার্ধক্যের প্রভাব সবচেয়ে বেশি দেখা যায় মুখের ত্বকে। মুখের ত্বকের আলগা ভাব দূর করতে প্রাকৃতিক তেল দিয়ে মুখ ম্যাসাজ করতে পারেন। যেমন সরিষার তেল, অ্যাভোকাডো তেল অ্যান্টি, আর্গান তেল, বাদাম তেল ইত্যাদি। এই তেলগুলিতে অ্যান্টি-এজিং বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বকের বলিরেখা কমাতে পারে। এটি ত্বকের টিস্যু সুস্থ রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, যা ত্বককে টানটান রাখতে পারে। এগুলো নিয়মিত ব্যবহার করে আপনি পরিবর্তন অনুভব করবেন।

ত্বক টানটান করতে কী খাবেন?

ত্বকে উপস্থিত কোলাজেনকে শক্তিশালী রাখতে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড খাওয়া সবচেয়ে জরুরি। মাছকে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ বলে মনে করা হয়। স্যামন, টুনা, সার্ডিন এবং ইলিশ জাতীয় মাছ খাওয়া উপকারী হতে পারে। এছাড়াও, আপনার খাদ্যতালিকায় আখরোট, ফ্ল্যাক্সসিড তেল, চিয়া বীজ এবং সয়া খাবার অন্তর্ভুক্ত করুন। ত্বক টানটান রাখতে টমেটোও আপনার ডায়েটে রাখতে পারেন। টমেটোতে রয়েছে লাইকোপিন, যা একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা ত্বকে উজ্জ্বলতা আনে এবং এটিকে নরমও করে।

Related Articles

Back to top button