টলিউডবিনোদন

চিরাচরিত প্রথা ভেঙে ২৩ বছরের বন্ধু সোনালীকে থালা সাজিয়ে সাধ খাওয়ালেন ভাস্বর

ভাস্বর জানালেন, ২৩ বছরের বন্ধু, আর তাকে একটু ভালোমন্দ খাওয়াব না।

×
Advertisement

সকলেই বলে থাকেন টলিপাড়ায় কোন রকম বন্ধুত্ব নেই। সকলেই একে অপরের সাথে যেন রেস করতে এসে পড়েছেন এই ইন্ডাস্ট্রিতে। কিন্তু এরকম একটি ইন্ডাস্ট্রি মধ্যেও যে বন্ধুত্ব পাওয়া যায় তার নিদর্শন দেখালেন এদিন ভাস্বর এবং সোনালী। আপনারা হয়তো সকলেই জানেন সোনালী চৌধুরী খুব শীঘ্রই মা হতে চলেছেন। আর সেই উপলক্ষে, তার দীর্ঘদিনের বন্ধু ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় তাকে সাধ খাওয়ালেন।

Advertisement

ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় বললেন, “২৩ বছরের বন্ধুত্ব, আর তাকে ভালো-মন্দ খাওয়াব না?” সেই উপলক্ষে একেবারে সটান সোনালীর বাড়িতে হাজির হয়ে গেলেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়। তিনি বললেন, “মিষ্টি খেতে ভালোবাসে সোনালী। প্রথমবার মা হচ্ছে। তাই মিষ্টি আর নোনতা খাবার ওর জন্য ছোট্ট উপহার।”

এতদিন পর্যন্ত আপনারা জানতেন হবু মাকে শুধুমাত্র মেয়েরাই সাধ খাওয়ান। কিন্তু এতদিন পরে ভাস্বরের এই নতুন পদক্ষেপে কিন্তু লিঙ্গভেদ একেবারে দূরে সরিয়ে দিলেন তিনি। সেই ১৯৯৮ সাল থেকে পরস্পরের বন্ধু সোনালী এবং ভাস্বর। তখন প্রথমবার ক্যামেরার মুখোমুখি হয়েছিলেন দুজনে।

Advertisement

তারপর বহুদিন এগিয়েছে বছরও ঘুরেছে। কিন্তু দুজনের বন্ধুত্ব বেড়েছে, একফোঁটাও কমেনি। এবারে এই বন্ধুত্বের টানে ভাস্বর তার বহুদিনের বন্ধু সোনালীকে সাধ খাওয়ালেন। উচ্ছ্বসিত সোনালী। তিনি বললেন, “কাজের দুনিয়ায় নাকি বন্ধুত্ব হয়না। কথাটা বোধহয় ঠিক নয়। এরকম না হলে ভাস্বর কিন্তু এভাবে ছুটে আসত না।”

তিনি বললেন, “ভাস্বর ছাড়াও দোলন রায়, সহ একাধিক অভিনেতা তাকে সাধ খাওয়াবেন বলে জানিয়েছেন। তবে, ভাস্বর শুধুমাত্র যে খাওয়াতে এসেছিলেন তা কিন্তু নয়।” অভিনেত্রী বললেন, রিটার্ন গিফট হিসেবে সোনালির মা এর হাতের লুচি, সাদা আলু তরকারি এবং মিষ্টি জমিয়ে খেয়েছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button