×
বলিউডবিনোদন

বক্স অফিসে জোর টক্কর অজিতের ‘ভালিমাই’ ও পবন কল্যাণের ‘ভিমলার’, কে জিতছে এই দৌড়ে?

তিনটি ছবি একসাথে বক্স অফিসে রিলিজ করেছে

Advertisement

বড় অভিনেতারা বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াতে একেবারে ছেয়ে রয়েছেন। একই দিনে দুজন বড় অভিনেতার ছবি বক্স অফিসে রিলিজ করেছে। একদিকে যেমন তামিল সিনেমায় থানা নামে পরিচিত অজিত কুমারের ছবি ভালিমাই বক্স অফিসে একেবারে জমিয়ে দিয়েছে, অন্যদিকে তেলেগু ইন্ডাস্ট্রিতে পাওয়ারস্টার হিসেবে পরিচিত পবন কল্যাণের সিনেমা ভিমলা নায়ক একইসাথে হয়েছে জনপ্রিয়। পাওয়ার স্টার হিসেবে এবং দুর্দান্ত বক্স অফিস কালেকশন এর মাধ্যমে একটি আলাদা নাম তৈরি করে ফেলেছে এই ছবিটি।

Advertisement

তবে বলিউডের সঞ্জয় লীলা বনসালির ছবি গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াবাড়ি এখনো দক্ষিণের এই দুটি ছবি থেকে বেশ কিছুটা পিছিয়ে। ভালো আয় করলেও, এটি এখনো বাকি দুটি সিনেমা থেকে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। থালা অজিতের ভালিমাই ছবিটি ২ দিনে কামিয়ে ফেলেছে ৯৫ কোটি টাকা এবং তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন তিনি জোসেফ বিজয় থেকে কোন অংশে কম নন। অন্যদিকে, বিজেপির সক্রিয় কর্মী তথা নায়ক পবন কল্যাণের ভিমলা নায়ক ছবিটিও একইসাথে হয়েছে জনপ্রিয়। বক্স অফিস কালেকশন দেখে যারা তার অবমূল্যায়ন করেছিলেন, তাদেরকে একেবারে ভুল প্রমাণ করে দিয়েছেন তিনি। তামিলনাড়ুতে ভালিমাই ছবিটি তিনদিনে সংগ্রহ করে ফেলেছে ৮১.২৫ কোটি টাকা, পুরো ভারতে কালেকশন আরো বেশি। অন্যদিকে, শুধুমাত্র অন্ধ্রপ্রদেশে এবং তেলেঙ্গানায় ভিমলা নায়ক ছবিটি মাত্র ২ দিনে আয় করেছে ৬২.১৪ কোটি টাকা।

Advertisement

আপনাদের জানিয়ে রাখি, বর্তমানে এই দুটি ছবির সম্পূর্ণ বক্স অফিস কালেকশন প্রকাশ করা হয়নি। বিশেষ করে আমাদের হাতে এখনো রবিবারের বক্স অফিস কালেকশন আসেনি। সম্ভাবনা রয়েছে রবিবার ছুটির দিন হওয়ায়, এই দিন বেশ ভালো মত আয় করবে এই দুটি ছবি। অন্যদিকে সারাবিশ্বে ভালিমাই মাত্র দুই দিনের মধ্যে ৯৫ কোটি টাকার বেশি ব্যবসা করে ফেলেছে। দুটি ছবি দুর্দান্তভাবে ওপেনিং পেয়েছে। তবে প্রথম দিনের কালেকশন হিসেবে কিন্তু ভালিমাই ভিমলা নায়কের থেকে কিছুটা পিছিয়ে। প্রথমদিন ভালিমাই বিশ্বব্যাপী বক্সঅফিসে ৫৯.৪৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছিল। অন্যদিকে, ভিমলা নায়ক ছবিটি সংগ্রহ করেছিল ৬১.২৪ কোটি টাকা।

একই সাথে কথা বলতে হয় গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াবাড়ি নিয়ে। এই ছবিটিও বক্সঅফিসে বেশ ভালো কালেকশন করতে শুরু করেছে। মাত্র ২ দিনে ভারতে ২৩.৮২ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে এই ছবিটি। অন্যদিকে রবিবার ছবিটি ৪০ কোটি টাকার কাছাকাছি পৌঁছাতে পারে বলে ধারণা করছেন বক্সঅফিস বিশেষজ্ঞরা। ছবিটির পঞ্চম দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার মহা শিবরাত্রি। তাই ওইদিনও একটি ছুটি রয়েছে। সম্ভাবনা রয়েছে ওই দিন বেশ ভালো মতো কালেকশন করতে পারবে এই ছবিটি। মহারাষ্ট্রের সমস্ত সিনেমা হলে এই মুহূর্তে ৫০ শতাংশ আসন সংখ্যার নিয়মটি প্রযোজ্য রয়েছে। সেই হিসেবে দেখতে গেলে বাণিজ্য বিশ্লেষকরা মনে করছেন গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াবাড়ি বেশ ভালো একটি কালেকশন করেছে।

Related Articles

Back to top button