নিউজরাজ্য

বন্যা পরিস্থিতিতেও সাঁতার কেটে হাসপাতালে এসে রোগীর প্রাণ বাঁচালেন ৩ চিকিৎসক, কুর্নিশ নেট দুনিয়ায়

দামোদর নদীর জলে উদয়নারায়ণপুরের বিস্তীর্ণ অঞ্চল কার্যত একেবারে ভেসে গিয়েছে।

×
Advertisement

বর্ষার প্রবল বৃষ্টিতে কার্যত সারাবাংলা একেবারে বানভাসি। প্রত্যেক জায়গায় প্রায় হাটু সমান জল। কিছু জায়গা যেগুলি দামোদর বা এই সমস্ত নদীর কাছাকাছি জায়গায় অবস্থিত রয়েছে সেখানে আবার একেবারে মানুষ সমান জল। এরকমই একটি জায়গা হল হাওড়া উদয়নারায়নপুর। বিগত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে এখানে একেবারে জলমগ্ন অবস্থা। পুরো উদয়নারায়নপুর জুড়ে একেবারে মানুষ সমান জল।

Advertisement

নৌকা বা অন্যান্য যানবাহন ছাড়া চলা যাচ্ছে না রাস্তায। আর সেই ধরনের যানবাহনের সংখ্যা অত্যন্ত কম। কিন্তু, কর্তব্যের দায়িত্ব বলে কথা। তাই এরকম ঝড় জল মাথায় করেও সাঁতার কেটে স্টেট জেনারেল হাসপাতলে এসে এক রোগিনীর প্রাণ বাঁচালেন তিনজন চিকিৎসক। ঘটনাটি ঘটেছে উদয়নারায়নপুর এর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে। জানা যাচ্ছে এখানে একজন রোগী নিয়ে ভর্তি ছিলেন যার বিগত এক মাস ধরে রজঃস্রাবের মত রক্ত পড়ছিল।

কিছুতেই বোঝা যাচ্ছিল না, রজঃনিবৃত্তি হয়ে যাবার পরেও কেন রক্ত পড়ছে। পরীক্ষা করার পর বোঝা যায় ওই রোগিনীর জরায়ুতে রয়েছে একটা বিশাল আকৃতির টিউমার, যা সময় মতো শরীর থেকে না বের করা গেলে ওই রোগিনীর প্রাণ সংশয় হতে পারে। বেশ কয়েকদিন ধরে ওই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ওই রোগিনী। আজকে ছিল অপারেশন হওয়ার কথা।

Advertisement

কিন্তু এত বৃষ্টি মাথায় করে কিভাবে আসবেন সেই ভেবে যখন সকলে অস্থির, সেই সময় সাঁতার কেটে হাসপাতালে পৌঁছে ওই রোগিনীর প্রাণ বাঁচালেন ৩ জন চিকিৎসক। কিন্তু, এত কিছু করার পরেও যে তারক দাস, প্রভাস দাস ও অশোক খাঁড়া অতিরিক্ত কিছু কৃতিত্ব গ্রহণ করছেন তা কিন্তু নয়। তারা তিনজন জানাচ্ছেন, এটা তাদের কর্তব্য। রোগিনীর দেহ থেকে তারা ওই ক্রিকেট বল আকৃতির টিউমার সঠিক ভাবে বের করে নিয়েছেন। রোগিনী বর্তমানে সুস্থ রয়েছেন। তবে ডাক্তারবাবুরা অতিরিক্ত কৃতিত্ব না নিলেও, সমগ্র নেটদুনিয়া আজ তাদেরকে কুর্নিশ জানাচ্ছে, তাদের কাজের প্রতি শ্রদ্ধা এবং মানুষের প্রতি থাকা দায়িত্ববোধ দেখে।

Related Articles

Back to top button