ভাইরাল & ভিডিও

‘চুনারি চুনারি’, বাড়ির উঠোনে দুর্দান্ত নেচে সকলকে মুগ্ধ করল দুই ভাই-বোন, ভিডিও ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়া মানুষের কাছে তাদের বিনোদনের অন্যতম প্রধান মাধ্যম হয়ে উঠেছে। এখন অধিকাংশ মানুষই নিজেদের অবসরের বেশিরভাগ সময়টাই কাটান এই সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিনোদন মাধ্যম হওয়ার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়া যেকোনো মানুষের প্রতিভাকে সকলের সামনে তুলে ধরার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্মও বটে। এখন প্রায়ই সকলে নিজেদের প্রতিভাকে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সকলের সামনে আনতে চান, শুরু করার জন্য তাদের কোনো বড় রিয়্যালিটি শো-এর অপেক্ষায় থাকতে হয় না।

প্রতিদিন প্রতি মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে। কেউ নিজের নাচের, কেউ গানের, কেউবা আঁকার, আবার কেউ নিজের শিল্পীসত্তাকে প্রকাশ করছেন এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই। বর্তমান যুগের সোশ্যাল মিডিয়া মানে কোন একটি নির্দিষ্ট প্ল্যাটফর্ম নয়, এক্ষেত্রে মানুষের সামনে খোলা রয়েছে অনেকগুলো রাস্তা। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব, টুইটার, স্ন্যাপচাট ইত্যাদির মত একাধিক প্ল্যাটফর্ম, যার সাহায্যে তারা নিজেদের প্রতিভাকে সকলের সামনে তুলে ধরতে সক্ষম হন অনেকেই।

সাম্প্রতিক যুগে এই সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরেই তরুণ প্রজন্মের অনেকেই নিজেদের প্রতিভাকে পৌঁছে দিতে পেরেছেন বহু মানুষের কাছে। নেটদুনিয়ার মাধ্যমে তাদের পরিচিতি এসেছে অনেকের মধ্যে। শহরে এসে প্রতিদিন নিজের প্রতিভার জন্য যাদের লড়াই করার সামর্থ্য নেই, তারা এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই পৌঁছে যাচ্ছেন বহু মানুষের কাছে। তাদের প্রতিভা তাদের পরিচয় তৈরি করছে নেটিজেনদের একাংশের মধ্যে। সম্প্রতি তেমনি একটি ভিডিও সামনে এসেছে সকলের।

সম্প্রতি ইন্সটাগ্রামের একটি পেজ থেকে দুই গ্রাম্য ভাই-বোনের নাচের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে গোটা সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাদের নাচের প্রতিভা দেখে রীতিমত মুগ্ধ হয়েছেন নেটনাগরিকদের একাংশ। একেবারে সাধারণ পোশাকে হিন্দি গান ‘চুনারি চুনারি’তে দক্ষতার সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে নিখুঁতভাবে নেচেছেন এই দুই ভাই-বোন। মাটির প্রলেপ দেওয়া নিজেদের বাড়ির উঠোনেই এই গানের ভিডিও শুট করেছেন দুজনে।

এনাদের নাচ দেখেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে তারা ইনস্টাগ্রামে এই ধরনের রিল ভিডিও বানাতে অভ্যস্ত। মাঝে মাঝেই এই দুই ভাই-বোনকে রিল ভিডিও বানিয়ে ভাইরাল হতে দেখা যায়। এদের মধ্যে নাচের প্রতিভা বর্তমান তা স্বীকার করছেন নেটিজেনদের অনেকেই। আজকের যুগে দাঁড়িয়ে এটা হয়তো সোশ্যাল মিডিয়ার একটা ইতিবাচক দিক। ভবিষ্যতে নিজেদের প্রতিভাকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য একটা বড় মঞ্চ তারা পাক, চান নেটিজেনদের অনেকেই।

Related Articles

Back to top button