কলকাতানিউজরাজ্য

আজই রাজ্যে আসছে ভ্যাকসিন, পুণে থেকে রওনা দিল ট্রাক বোঝাই কোভিশিল্ড

Advertisement
Advertisement

কলকাতা: ‘দূগ্গা দূগ্গা’ আজই পুণে (Pune) থেকে রওনা দিল করোনার টিকা (Corona Vaccine)। আজ, মঙ্গলবার (Tuesday) কলকাতায় (Kolkata) ঢুকছে কোভিড ভ্যাকসিন। হাতে আর তিনদিন, তারপরই মহা সমারহে শুরু হতে চলেছে টিকাকরণ। যার জন্য মঙ্গলবার কাকভোরেই সিরাম ইনস্টিটিউট থেকে রওনা দিল তিন ট্রাক টিকা। জানা গিয়েছে, ঘড়িতে যখন ভোর পাঁচটা, ঠিক তখনই ছিল পুজোর সময়। পুজো অর্চনার পর রওনা দিয়েছে ৩ ট্রাক টিকা। নারকেল ফাটিয়ে নিরাপত্তার মুড়ে শুরু হয়েছে প্রথম যাত্রা।

Advertisement
Advertisement

সিরাম থেকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত মালবাহী গাড়িতে প্রথমে টিকাগুলি নিয়ে যাওয়া হয় পুণের বিমানবন্দরে। সেখান থেকে কার্গো বিমান। যথা স্থানে পৌঁছে যাওয়ার পর শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বিমানে তুলে দেওয়া হয়। এই বিমানেই রাজ্যে রাজ্যে পৌঁছাবে টিকা। প্রসঙ্গত, আজই বাংলায় পৌঁছাচ্ছে কোভিশিল্ড।

Advertisement

স্পাইস জেটের বিমানে পুণে থেকে কলকাতায় আসবে অতিমারির টিকা। দুপুর ২টো ১৫ মিনিট নাগাদ দমদম বিমানবন্দরে তার অবতরণের কথা। বাংলার জন্য বরাদ্দ ভ্যাকসিন নামিয়ে সেই বিমান উড়ে যাবে গুয়াহাটির পথে। স্পাইস জেট ছাড়াও গোএয়ার, এয়ার ইন্ডিয়া, ইন্ডিগোর মোট ৯টি বিমান পুণে থেকে ৫৬.৫ লক্ষ ডোজ নিয়ে ৯টি শহরে পৌঁছবে।

Advertisement
Advertisement

মঙ্গলবার সকাল থেকেই তোড়জোড় শুরু। উত্তর কলকাতার বাগবাজারে তৈরি করা হয়েছে ভ্যাকসিনের হাব। অর্থাৎ কলকাতায় পৌঁছনোর পর প্রাথমিকভাবে ভ্যাকসিন রাখা হবে বাগবাজারে। সেখান থেকেই বিভিন্ন জেলার পথে রওনা দেবে। কড়া নিরাপত্তার মধ্যে বিমান বন্দর থেকে কোভিশিল্ড আনা হবে হাবে। থাকবে পুলিসের এসকর্ট।

‘দূগ্গা দূগ্গা’ আজই পুণে থেকে রওনা দিল করোনার টিকা। প্রথম কিস্তিতে কোভিশিল্ডের প্রায় ৬.৯ লক্ষ ভ্যাকসিনের ডোজ় পৌঁছবে শহরে। এখান থেকেই ভ্যানে করে তা বিভিন্ন জেলায় পাঠানো হবে। এরপর আগামী ১৬ জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে শুরু হবে টিকাকরণ প্রক্রিয়া।

এই বিরাট কর্মযজ্ঞে অংশ নিতে পেরে দারুণ খুশি বিমান সংস্থা স্পাইস জেট। সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর অজয় সিং বলেন, “ভারতে প্রথম কোভিড টিকা বণ্টনের অংশী হয়ে আমরা খুবই খুশি। ৩৪টি কোভিশিল্ডের বাক্স নিয়ে পুণে থেকে দিল্লি উড়ে যাচ্ছে আমাদের বিমান। সেখান থেকে গুয়াহাটি, কলকাতা, হায়দরাবাদ, ভুবনেশ্বর, বেঙ্গালুরু, পাটনা, বিজয়ওয়াড়ায় পৌঁছবে ভ্যাকসিন। এ এক ইতিহাসের সাক্ষী হতে চলেছি আমরা।”

Advertisement

Related Articles

Back to top button