ডিফেন্সনিউজরাজ্য

জানুয়ারির মধ্যে রাজ্যে তৈরি হবে তিন পুলিশ ব্যাটেলিয়ন, নির্বাচনের আগে মমতার মাস্টারস্ট্রোক 

×
Advertisement

বিহার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি জয়লাভের পর গেরুয়া শিবির আসন্ন বাংলা বিধানসভা নির্বাচনে জয়ের জন্য সবরকম চেষ্টা করবে। কিন্তু এই মুহূর্তে তাদের পাল্লা ভারী থাকলেও হার মানতে নারাজ রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। এবারে নির্বাচনে জেতার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নয়া দাওয়াই রাজ্যের বেকার সমস্যা দূর করা। আসন্ন ভোটযুদ্ধে এগিয়ে থাকার জন্য এদিনকার নবান্ন বৈঠকে মমতার মাস্টারস্ট্রোক রাজ্যে তিনটি পুলিশ ব্যাটেলিয়ান গঠনের ঘোষণা।

Advertisement

 

আমাদের রাজ্য তথা দেশে বেকার সমস্যা বড় সমস্যা। লক্ষ লক্ষ যুবক-যুবতী শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকলেও চাকরি পাচ্ছে না। রাজ্যের মধ্যেও বেকার সমস্যা বেশ অন্যতম। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি সাংবাদিক বৈঠক জানান, রাজ্যে এবার আলাদা করে তিনটি পুলিশ ব্যাটেলিয়ন গঠন হবে। সেই তিনটি ব্যাটেলিয়ন হল কোচবিহারের জন্য নারায়নী ব্যাটালিয়ন, দার্জিলিং আর কালিম্পং এর জন্য গোর্খা ব্যাটেলিয়ন এবং জঙ্গলমহলের জন্য জঙ্গলমহল ব্যাটেলিয়ান। প্রত্যেকটি ব্যাটেলিয়ানে ১০০০ জন যুবককে জানুয়ারি মাসের মধ্যে নিয়োগ করার আদেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ব্যাটেলিয়নে নিয়োগ এর ফলে তিনটি ব্যাটেলিয়ানে এক হাজার করে মোট ৩০০০ যুবকের চাকরির সংস্থান হবে।

Advertisement

 

মুখ্যমন্ত্রী এদিনের বৈঠকে জানিয়েছেন, নারায়ণী ব্যাটেলিয়ান রাজবংশী সম্প্রদায়ের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। আসলে নারায়ণী সেনার উৎপত্তি কোচবিহারে রাজার আমল থেকে। এর আগে গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশন নারায়ণী সেনা তৈরি করা নিয়ে কেন্দ্র রাজ্যের সম্পর্কে বেশ চাপানউতোর হয়েছিল। এছাড়া দার্জিলিং ও কালিম্পং এর পাহাড়ের জন্য এর আগেই ইএফআর বাহিনী ছিল যা স্বাধীনতার পর নাম পরিবর্তন করে নিয়েছিল। আর জঙ্গলমহলে যুবকরা এতদিন হোমগার্ড বা পুলিশ বাহিনীতে নিয়োগ হত। কিন্তু এবার তারা জঙ্গলমহল ব্যাটেলিয়ানে নিয়োগ হতে পারবে।

 

রাজ্যে পুলিশ ব্যাটেলিয়ান তৈরীর সাথে সাথে মমতার আরেক দাওয়াই দু’মাসের মধ্যে ১৬ হাজার শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগ করা। তিনি বলেছেন, ইতিমধ্যে ২০ হাজার চাকুরিপ্রার্থী শিক্ষক নিয়োগের টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। এছাড়াও এখনো অনেকে টেট পরীক্ষা দিতে চায়। তাই অফলাইনে আবার টেট পরীক্ষা হবে রাজ্যে।

Related Articles

Back to top button