টলিউডবিনোদন

Sreelekha Mitra: সারমেয় নিয়ে ফের হেনস্থার মুখে শ্রীলেখা, বিক্রি করতে চাইছেন নিজের ফ্ল্যাট

নিজের আবাসনে চূড়ান্ত হেনস্তার শিকার হলেন টলু অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। এবার এমনই অভিযোগ সোশ্যাল মিডিয়ায় করলেন অভিনেত্রাই। এদিন লাইভে এসে কান্নায় ভেঙে পড়লেন শ্রীলেখা মিত্র। এই হেনস্থার কারণস্বরুপ হিসেবে বললেন, তিনি যেহেতু রাস্তার কুকুরদের আদর-যত্ন করেন তাই তাঁকে নিগ্রহের শিকার হতে হয়েছে, এমনই অভিযোগ অভিনেত্রীর। 

কিছুদিন আগেই নিজের বাবাকে হারিয়েছেন। সেই কষ্ট থেকে এখনও সামলে উঠতে পারেননি অভিনেত্রী। এর মধ্যেই রাস্তার কুকুরদের আদর-যত্ন করেন বলে গত শুক্রবার নিজের আবাসনের৷ অন্যান বাসিন্দাদের সঙ্গে তুমুল বচসায় জড়ালেন শ্রীলেখা। ফেসবুকে লাইভে শেয়ার করা ভিডিয়োতে শ্রীলেখা কান্নায় ভেঙে পড়েন। তাঁর অভিযোগ, বরাবর সকলের মুখের ওপর অপ্রিয় সত্যি কথা বলেন বলে অনেকেই তাঁকে অপছন্দ করেন। রাস্তার কুকুরদের হয়ে কথা বলেছেন বলে আবাসনের এক মহিলা তাঁকে পাগল বলতেও একবার ভাবেননি। এই নিগ্রহ আর মেনে নিতে পারছেন না বলেই জানান অভিনেত্রী।

ফেসবুক লাইভে অভিনেত্রী শ্রীলেখা আফসোস করে বলেন, ‘এই সমাজে বোধহয় আমি বা আমার মতো মানুষ থাকার যোগ্য নই’। বাধ্য হয়ে নিজের পরিশ্রমের টাকায় কেনা, নিজের হাতে সাজানো ফ্ল্যাট এখন ছেড়ে অন্যত্র চলে যাওয়ার মতো বিরাট সিদ্ধান্তও নিয়ে ফেলেছেন অভিনেত্রী। এই সমস্যার সূত্রপাত কোথায়? শুক্রবার শ্রীলেখার আবাসনের নীচের একটি কুকুরের কামড়ে ওই আবাসনেরই একটি বাচ্চা মেয়ে আহত হয়েছে বলে অভিযোগ আবাসিকদের। এরপরই সেই কুকুরটির উপর চড়াও হয় আবাসিকের অন্য সদস্যরা। স্বভাবতই শ্রীলেখা কুকুরগুলির দেখভাল করে তাই তাঁর সঙ্গেও তুমুল ঝগড়া আবাসনের বাসিন্দাদের। এদিন অভিনেত্রী অভিযোগ করেন, কুকুরটিকে বিষ খাইয়ে মারা হবে হুমকি দেওয়া হয়। অভিনেত্রী প্রতিবাদ জানাতে এরপরেই তাঁর ফ্ল্যাটের সামনে আবর্জনা ছড়িয়ে দিয়ে আসবার হুমকি দেন এক বাসিন্দা। 

শ্রীলেখার আবাসনের গার্ডও এই লাইভে অভিনেত্রীকে জানান, যাঁর মেয়েকে কুকুরটি কামড়েছে সে বিষ খাইয়ে কুকুর মারার কথা বলেছে। পাশাপাশি হাউসিং সোসাইটির অপর সদস্য হীরক জানিয়েছেন, কুকুরের এই কাণ্ড পরবর্তীতে আবার হলে সিকিউরিটি গার্ডের মাইনে থেকে ৫০০ টাকা কেটে নেওয়ার হুমকি দিয়েছে। এদিন লাইভে এসে শ্রীলেখা জানান, রাস্তার যে কুকুরদের তিনি স্নেহ করেন, তাদের প্রত্যেকের ভ্যাকসিন দেওয়া রয়েছে। অথচ আবাসনের কিছু বাসিন্দার অভিযোগ, এদের কারণে নাকি ভাইরাস ছড়াচ্ছে। আর তার পরেই শ্রীলেখাকে নিগ্রহের শিকার হতে হয়েছে বলে অভিযোগ।

শ্রীলেখা আরো জানান, তিনি একজন শিল্পী এবং স্পর্শকাতর মানুষ। স্পষ্ট কথা বলাতে বারবার হেনস্থা হতে হয় তবে এরকম হেনস্তা তিনি আর নিতে পারছেন না। এই ফ্ল্যাটটি তাঁর খুব প্রিয়। তা সত্ত্বেও সেই ফ্ল্যাট বিক্রি করে দিতে চাইছেন। তাঁর কথায় “প্রতিদিন একা একা এই লড়াই করতে পারছি না। নেগেটিভিটি নিয়ে বাঁচতে পারছি না”।

Related Articles

Back to top button