ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

প্রতিদিন জমান মাত্র ২৫০ টাকা, লাভ হবে ২৪ লক্ষ! পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কিমের কথা জানেন?

Advertisement
Advertisement

বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এখন ব্যাঙ্কের পাশাপাশি পোস্ট অফিসেও (Post Office Scheme) ভালো স্কিম পাওয়া যাচ্ছে। নিরাপদে বিনিয়োগ করে ভালো রিটার্ন পাওয়ার ক্ষেত্রে পোস্ট অফিসের একাধিক স্কিম রয়েছে যেগুলি সর্ব ক্ষেত্রের মানুষের মাঝে বেশ জনপ্রিয়। দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারীদের মাঝে পোস্ট অফিস পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড একটি জনপ্রিয় স্কিম। এই স্কিমে বছরে সর্বনিম্ন ৫০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ১.৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে। এই প্রভিডেন্ট ফান্ডে সুদের হার ৭.১ শতাংশ। এই বিশেষ স্কিমের অন্যতম সুবিধা হল এতে ট্যাক্সের সুবিধা পাওয়া যায়।

Advertisement
Advertisement

পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড স্কিমে প্রতিদিন মাত্র ২৫০ টাকা করে বিনিয়োগ করে ২৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পাওয়া যেতে পারে। এভাবে মাসে ৭৫০০ টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে। অর্থাৎ সেই হিসেবে এই স্কিমে বার্ষিক ৯০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে। ১৫ বছরের মেয়াদে টাকা জমা করা যায় পিপিএফ এ। হিসেব মতো, ৯০ হাজার টাকা অনুযায়ী, ১৫ বছরে মোট বিনিয়োগ করতে হবে ১৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা। পিপিএফ এ ৭.১ শতাংশ হারে সুদের হিসেবে ১০,৯০৯২৬ টাকা মিলবে সুদ হিসেবে। অর্থাৎ ১৫ বছরের মেয়াদ শেষে আসল এবং সুদ মিলিয়ে পাওয়া যাবে ২৪,৪০৯২৬ টাকা।

Advertisement

পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড একটি এক্সেম্পট এক্সেম্পট এক্সেম্পট ক্যাটেগরি ভুক্ত স্কিম। অর্থাৎ এই স্কিমে বিনিয়োগ করা টাকার উপরে কোনো কর দিতে হয় না। প্রতি বছর জমা রাখা টাকার উপরে অর্জিত সুদ এবং মেয়াদ পূরণের পর প্রাপ্ত পুরো টাকাটাই হয় করমুক্ত।

Advertisement
Advertisement

পাশাপাশি পিপিএফ অ্যাকাউন্টে জমা করা টাকার পরিমাণের ভিত্তিতে ঋণও নিতে পারবেন অ্যাকাউন্ট গ্রাহকরা। পিপিএফ অ্যাকাউন্টে সুদের হারের চেয়ে পিপিএফ ঋণের সুদের হার ১ শতাংশ বেশি। অর্থাৎ ঋণ নেওয়ার জন্য ৮.১ শতাংশ হারে সুদ দিতে হবে। তাই আয়করের দিক দিয়েও পোস্ট অফিসের এই পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড স্কিমটি বেশ ভালো।

Advertisement

Related Articles

Back to top button