গরমা গরমবলিউডবিনোদন

সৌভিক ও মিরান্ডার জন্য কোন নির্দেশ ঘোষণা করল আদালত?

সুশান্ত মামলায়, মাদক সংক্রান্ত যাবতীয় দোষ স্বীকার করে নেয় রিয়া চক্রবর্তীর ভাই সৌভিক চক্রবর্তী ও সুশান্তের প্রাক্তন হাউস ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা। মূলত ,শুক্রবার সকালে মাদক চক্রে যোগ থাকার সূত্রে সুশান্ত সিং রাজপুতের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাকে গ্রেফতার করে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। এরপর জেরায় উঠে আসে সৌভিক চক্রবর্তীর নাম ও অন্যান্য মাদক পাচারকারীদের নাম। যাদের মধ্যে আবদুল বসিত বিশেষ ভাবে সৌভিকের নাম নিয়েছে। বসতি জানিয়েছে সউভিক-রিয়ার বাড়িতে তাঁর নিয়মিত যাতায়াত ছিল। এরপরেই, তড়িঘড়ি রিয়া চক্রবর্তীর বাড়িতে হানা দেয় এনসিবি র টিম। বাজেয়াপ্ত করা হয় সৌভিক ও রিয়ার সমস্ত ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস।

গতকাল বিকেলে সৌভিক ও মিরান্ডাকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা শুরু করেন এনসিবি-র আধিকারিকরা । তারপরেই গতকাল রাতে অর্থাৎ শনিবার সৌভিককে গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সৌভিক তাঁর জেরায় স্পষ্ট জানিয়েছিলেন যে, স্যামুয়েল মিরান্ডার মাধ্যমেই ড্রাগ কেনা হত এবং রিয়ার নির্দেশে একাধিকবার ড্রাগ আনা হয়েছে। সৌভিকের এমন বিস্ফোরক স্বীকারোক্তিতে স্যামুয়েল ও সৌভিককে আজ আদালতে পেশ করা হয়।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, রিয়া চক্রবর্তীর ভাই সৌভিক চক্রবর্তী ও স্যামুয়েল মিরান্ডাকে ৪ দিনের এনসিবি-র- হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। আগামী, ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মিরান্ডা ও সৌভিককে নিজেদের হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করবে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। অন্যদিকে, ধৃত দ্রাগ-মাফিয়া কাইজানকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বাকি অন্যানরা এখনও পর্যন্ত এনসিবি-র হেফাজতেই আছেন।

Tags

Related Articles

Back to top button