×
বলিউডবিনোদন

কোন অভিনেত্রীর থেকে সৌন্দর্যে কম নয় রামচরনের স্ত্রী, রইল ছবি

দক্ষিণের তারকা রামচরনের স্ত্রী যদিও সিনেমা জগতের সঙ্গে জড়িত নয়

Advertisement

দক্ষিণের সুপারস্টার অভিনেতা রামচরনের ব্যাপারে জানেন না এমন মানুষ এখন নেই। তার প্রত্যেকটি সিনেমা হয়ে থাকে সুপারহিট। দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির পাশাপাশি বলিউডেও তার জনপ্রিয়তা রয়েছে। মাঝেমধ্যেই আমরা থাকি বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করতে দেখে থাকি। সম্প্রতি এস এস রাজামৌলি পরিচালিত আর আর আর ছবিতে তাকে আমরা অভিনয় করতে দেখব। সম্পর্কে তিনি দক্ষিণের বর্ষিয়ান অভিনেতা চিরঞ্জীবীর পুত্র। অভিনেতা হিসেবে দক্ষিণের ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি দারুণ নাম করেছেন। তবে তিনি নিজের পার্সোনাল লাইফ কোনদিন ক্যামেরার সামনে আনতে চান না। তিনি সবসময় এটাকে প্রাইভেট রাখতে চান। তবে তার ভক্তরা সব সময় তার পরিবারের ব্যাপারে জানার ইচ্ছা রাখেন। এর মধ্যেই আমরা আজকে কথা বলবো রামচরনের পরিবারের ব্যাপারে।

Advertisement

আপনাদের জানিয়ে রাখি, রামচরনের স্ত্রী উপাসনা কিন্তু নিজে একজন ব্যবসায়ী। দক্ষিণ ভারতে উপাসনার বেশ নামজাদা একজন বিজনেস ওম্যান হিসেবে পরিচিত। রামচরনের পরিবারের প্রায় প্রত্যেক সদস্য সিনেমার সঙ্গে জড়িত থাকলেও, রামচরনের স্ত্রী কোনভাবে সিনেমার সাথে জড়িত নন। তবে, রামচরণ এবং তার স্ত্রী উপাসনার বিয়ের কাহিনী কোন সিনেমার প্লটের থেকে কম নয়। ১২ জুন ২০১২ সালে দুজনের বিবাহ হয়। কলেজ থেকে দুজনের প্রেম। তারপরে দুজনে একসাথে বিবাহ করার সিদ্ধান্ত নেন।

Advertisement

প্রথমদিকে দুজনে দুজনের খুব ভালো বন্ধু ছিলেন। কিন্তু কখন বন্ধুত্ব প্রেমে পরিণত হয়ে গিয়েছিল, সেটা তারা নিজেরাই টের পাননি। যদিও, রামচরণ যখন বিদেশে গিয়েছিলেন সেই সময় দুজন দুজনের থেকে অনেকটা দূরে ছিলেন কিন্তু, সেই সময় তাদের প্রেম আরো গভীর হয়। জানা যায়, রামচরণ যখন মগধীরা ছবির শুটিং করছিলেন, সেই সময় তিনি উপাসনাকে ডেট করতে শুরু করেন। সেই সময় থেকেই তাদের দুজনের প্রেমের গুঞ্জন শুরু হয়।

যদিও, তাদের দুজনের জন্য সবথেকে ভালো বিষয়টি ছিল এটা যে তাদের দুজনের পরিবার একে অপরকে ভাল ভাবেই চিনতো। তাই তাদের তেমন কোনো সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় নি। তাদের দুজনের বিবাহ কোন সমস্যা হয়নি। বর্তমানে রামচরণ দক্ষিণের সিনেমা জগতের একজন অত্যন্ত সফল অভিনেতা। অন্যদিকে তার স্ত্রী উপাসনা এখন একজন সফল মহিলা ব্যবসায়ী। উপাসনা এখন অ্যাপোলো লাইফ সংস্থার উপাধ্যক্ষ এবং তিনি বর্তমানে পজিভ ম্যাগাজিনের সম্পাদকও বটে। তিনি লন্ডনের রিজেন্ট ইউনিভার্সিটি থেকে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস মার্কেটিং এবং ম্যানেজমেন্টের ডিগ্রী অর্জন করেছেন। তবে সৌন্দর্যের দিক থেকে উপাসনা কোন অভিনেত্রী থেকে কিছু কম নয়। তবে তিনি কখনো অভিনয় দিকে নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করতে চাননি, বরং তিনি সব সময়ই নিজের পরিবার এবং নিজের ব্যবসা নিয়ে থাকতে চেয়েছেন।

Related Articles

Back to top button