×
Today Trending Newsনিউজরাজ্য

এবছর মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার নিয়মে বড় পরিবর্তন

মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় আসছে বিশাল বড় পরিবর্তন, জেনে নিন সবিস্তারেকরোনা আবহে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়ার জন্য নয়া নিয়ম জারি করেছে রাজ্য সরকার

Advertisement

করোনা পরিস্থিতি চলাকালীন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করে দিয়েছেন এবারের মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা একটু অন্যভাবে নেওয়া হবে। এত বছর ধরে যেভাবে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক নেওয়া হয়েছে তার থেকে নিয়মে বেশকিছু বদল আসতে চলেছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো পরীক্ষার সময়সীমা অর্ধেক করে দেওয়া, এবং পরীক্ষার মার্কস একই রকমভাবে অর্ধেক করে দেওয়া। মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে। এবার পালা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার।

Advertisement

কিন্তু উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়ার সময় শিক্ষা দপ্তরকে বেশ সমস্যার মুখোমুখি হতে চলেছে। উচ্চমাধ্যমিকে বিষয় সংখ্যা থাকে সর্বমোট ৫২। এতগুলি পেপার মাত্র ৯ দিনের মধ্যে কিভাবে সম্পন্ন করা যায় সেই নিয়ে দ্বন্দ্বে রাজ্য সরকার। তার পাশাপাশি, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় প্রায় প্রত্যেকটি পেপারে দুটি করে পার্ট থাকে। যেমন বিজ্ঞানভিত্তিক পেপারের ক্ষেত্রে একটি থিওরি পেপার এবং অন্যটি প্রাক্টিক্যাল। এই পরিস্থিতিতে এই দুটি পেপার মিলিয়ে কিভাবে ৫০ শতাংশ নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া যায় তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছে রাজ্য প্রশাসন এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।

করোনার কারণে এবারে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় করা হতে চলেছে রদবদল। স্কুল শিক্ষা দপ্তর জানিয়েছে মাধ্যমিকের মত উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষাও এবারে ৫০ শতাংশ নম্বরে এবং অর্ধেক সময় এর হবে। তার সাথে সাথেই ৯ দিনের মধ্যে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক শেষ করার কারণে উচ্চমাধ্যমিকে সর্বাধিক পেপার সংখ্যা হতে পারে ১৮ থেকে ২০। আবশিক বিষয়ের সঙ্গে কেবল দুই থেকে তিনটি ঐচ্ছিক বিষয় এর পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব। যে বিষয়ের পরীক্ষা নেওয়া হবে না, সেই সমস্ত ঐচ্ছিক বিষয়ের নম্বর স্কুলে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে যোগ করে দেওয়া হবে। এই সপ্তাহের শেষে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ভবিষ্যৎ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।

Advertisement

এই সপ্তাহের শেষের দিকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে তারা। ১২ লক্ষ পরীক্ষার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে এবার মাধ্যমিকে। আর উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৮.৫ লক্ষ। ২০ লক্ষ পরীক্ষার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ করবে স্কুল শিক্ষা দপ্তর। তাই এই মুহূর্তে রাজ্য সরকারের কাছে এটাই সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ, কিভাবে সুষ্ঠুভাবে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া যায়। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে, যেন প্রত্যেকটি সেন্টারে স্যানিটাইজার এবং মাস্ক বাধ্যতামূলক থাকে। এছাড়াও সোশ্যাল ডিসটেন্স যেন মেনে চলা হয় সে বিষয়ে নজর রাখার আদেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

Related Articles

Back to top button