টলিউডবিনোদন

সুস্থতার পথে বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

Advertisement

বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ক্রমশ সুস্থতার পথে এগিয়ে যাচ্ছেন। সম্প্রতি দ্বিতীয়বার তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হয়। রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এই মুহূর্তে তাঁর শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা 96 শতাংশের বেশি। বৃহস্পতিবার রাতে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন,সৌমিত্রবাবুর আচ্ছন্নভাব কিছুটা কেটেছে। গ্লাসগো কোমা স্কেল অনুযায়ী সৌমিত্রবাবুর মস্তিষ্ক সূচক গতকাল 10 -এ পৌঁছে গেছে। কোনো সুস্থ মানুষের মস্তিষ্ক সূচক 15-এ থাকা উচিত বলে মনে করা হয়। কিন্তু এই সূচক 3-এ নেমে গেলে তখন একটি মানুষের ব্রেন ডেথ ঘোষণা করা হয়। সৌমিত্রবাবুর ক্ষেত্রে এই সূচক একসময় 6-এ নেমে গিয়েছিল। 85 বছর বয়সে সূচক 6 থেকে 10-এ উঠে আসা রীতিমত সুস্থ হয়ে আসার লক্ষণ। সৌমিত্রবাবু মাঝে মাঝে চোখ মেলে তাকাচ্ছেন,ডাকলে সাড়াও দিচ্ছেন। এছাড়া তাঁর অঙ্গ-প্রত্যঙ্গও সচল রয়েছে। রাতে অভিনেতার ভালো ঘুম হয়েছে। চিকিৎসকরা বলেছেন যে,এই মুহূর্তে তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। কিন্তু কো-মর্বিডিটি ও বার্ধক্যজনিত কিছু সমস্যা এখনও রয়েছে অভিনেতার। বৃহস্পতিবার তাঁকে প্রায় 16 ঘন্টা অক্সিজেন দেওয়া হয়েছে। সৌমিত্রবাবুর শরীরে সোডিয়াম ও পটাশিয়াম লেভেলের উন্নতি হয়েছে। তবে কিছুটা হলেও অভিনেতার অস্থিরতা এখনও রয়েছে। গত 40 ঘন্টায় সৌমিত্রবাবুর জ্বর আসেনি।

গত 6 অক্টোবর সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এলে দ্রুত তাঁকে বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। তাঁর সোডিয়াম ও পটাশিয়াম লেভেল নেমে যায়। রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা ক্রমশ কমতে থাকে এবং কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ বেড়ে যায়। এই সময় তাঁকে বাইপ‍্যাপ ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রাখা হয়। তাঁর সিটি স্ক্যান করে বুকে কিছু না পাওয়া গেলেও এম.আর.আই. রিপোর্টে জানা যায় তাঁর মস্তিষ্ক ও ফুসফুসে পুরানো ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ছে। সৌমিত্রবাবুর মূত্রথলিতে সংক্রমণ ধরা পড়ে। তাঁর সংক্রমণ চিকিৎসকদের উদ্বেগ বাড়িয়ে তোলে। 16 জন চিকিৎসকদের বিশেষ একটি টিম গঠন করা হয়। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী সৌমিত্রবাবুর শরীরে দুই বার প্লাজমা থেরাপির প্রয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাঁকে ইনভেসিভ ভেন্টিলেশনে দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছিল। তবে বুধবার থেকে তাঁর শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়। অ্যান্টিবায়োটিকে সাড়া দেন অভিনেতা। এই মুহূর্তে তাঁর খাবার ইচ্ছে না থাকলেও তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে তাঁর পুরানো ক্যান্সার তাঁর শরীরে ফিরে আসার কারণে চিকিৎসকরা তাঁকে এখনও সঙ্কটমুক্ত ঘোষণা করেননি।

এদিকে সৌমিত্রবাবুর কন্যা পৌলমী সোশ্যাল মিডিয়ায় বাবার সুস্থতার কথা জানিয়ে পোস্ট করেন এবং শুভানুধ্যায়ীদের ধন্যবাদ জানান। কিন্তু সৌমিত্রবাবুর ICU-এর ছবি ও ভেন্টিলেশনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় অনৈতিক ভাবে ছড়িয়ে পড়ার কারণে পৌলমী ক্ষোভ প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আরেকটি পোস্ট করেন। এই পোস্টটি অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তীও শেয়ার করেছেন। তবে এই মুহূর্তে সৌমিত্রবাবুর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাঁর অনুরাগীরা এবং পরিবার কিছুটা হলেও স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছেন। এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় চারিদিকে বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের হাসিমুখের ছবিতে একটাই ক্যাপশন দেওয়া পোস্ট ছড়িয়ে পড়েছে, ‘শাবাশ মিত্তির’।

 

Tags

Related Articles

Back to top button