বিনোদনভাইরাল & ভিডিওমিউজিক

Snigdhajit Bhowmik:স্নিগ্ধজিৎ-এর সাফল্যে ‘খুশি নন স্ত্রী’, কটাক্ষের যোগ্য জবাব দিলেন সারেগামাপার প্রতিযোগী

এবছর হিন্দি টেলিভিশন শো সারেগামাপা-র মঞ্চে বাংলার জয়জয়কার। সেরা ১৬ জন প্রতিযোগির তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন বাংলার স্নিগ্ধজিৎ, কিঞ্জল, অনন্যা, নীলাঞ্জনার গায়ক গায়িকারা। এঁরা সকলেই বাংলা রিয়ালিটি শো-এর মঞ্চের অতি পরিচিত মুখ। গায়ক গায়িকা হিসাবে যথেষ্ট নামডাক রয়েছে সকলের। এদের মধ্যে স্নিগ্ধজিৎ ভৌমিক
বাংলা সারেগামাপা ২০১৯-র ফাইনালে পৌঁছেছিলেন । বলা ভালো, সেই সময় সকল সঙ্গীতপ্রেমীর প্রিয়ের তালিকায় একদম প্রথম সারিতেই ছিলেন তিনি। তবে, একটুর জন্য হাতছাড়া হয়ে যায় সেই ট্রফি।

বাংলার মতো জাতীয় স্তরে জি টিভির জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো সারেগামাপা’র মঞ্চে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন বাংলার এই তরুণ গায়ক। সম্প্রতি এই শো থেকে কিছুদিনের ছুটি পেতেই বাংলায় চলে এসেছেন নিজের বাড়ি। কাজের জন্য কলকাতাতে থাকলেও এই গায়কের শিখর হল বালুরঘাট থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ছোট্ট শহর বুনিয়াদপুর। আর এখন তিনি বাবা মা আর স্ত্রীর সাথে এখানে আছেন। বাড়ি ফিরতেই নিজের একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন।

শেয়ার করা ভিডিয়োতে দেখা গিয়েছে, বাবা-মা-কে কিচ্ছুটি না জানিয়ে আমচকা বাড়ি ফিরেছেন স্নিগ্ধজিৎ। ঘরের ছেলে ফিরতেই চমকে যায় সবাইত। এদিন দেখা মিলল গায়কের স্ত্রী অদিতিরও। সারেগামাপা-র মঞ্চে জেতা মেডেলও নিজের প্রাণের চেয়ে প্রিয় মানুষগুলিকে এদিন পরিয়ে দিতে দেখা গিয়েছে স্নিগ্ধজিৎ-কে। কিন্তু এই ভিডিয়ো পোস্ট করে ট্রোলড হতে হয়েছে গায়ককে। তবে এই ভিডিয়োর কমেন্ট বক্সে অনেকেই লিখেছেন, ভিডিয়োতে অদিতিকে একদম মনমরা অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে, বরের সাফল্যে খুশি নন তিনি। তবে এই কটাক্ষের জবাব দিলেন গায়ক। 

blockquote class=”instagram-media” data-instgrm-captioned data-instgrm-permalink=”https://www.instagram.com/tv/CWFbTYAMScQ/?utm_source=ig_embed&utm_campaign=loading” data-instgrm-version=”14″ style=” background:#FFF; border:0; border-radius:3px; box-shadow:0 0 1px 0 rgba(0,0,0,0.5),0 1px 10px 0 rgba(0,0,0,0.15); margin: 1px; max-width:540px; min-width:326px; padding:0; width:99.375%; width:-webkit-calc(100% – 2px); width:calc(100% – 2px);”>

স্নিগ্ধজিৎ পালটা লেখেন, ‘অনেক কেউ কমেন্ট করছে যে বউ খুশি না, আচ্ছা এবার তাদের ভুলটা একটু ভাঙিয়ে দিই, নইলে শান্তি হচ্ছে না। আমার জীবনে বউ এতোটা আত্মত্যাগ করেছে, আর এতো বড় মঞ্চে আমার সাফল্যে বউ খুশি হবে না? আসলে আমি বম্বে থেকে কলকাতায় ল্যান্ড করেছিলাম ফ্লাইটে আর আমার বউ সারারাত জার্নি করে গ্রাম থেকে কলকাতায় নিতে এসেছিল, তারপর আবার গাড়ি থেকে ২০ ঘন্টা ধরে কলকাতা থেকে গ্রামে ফেরা। এতক্ষণ জার্নি করলে কারুর মুখে হাসি থাকবে বাবু, তাও যে ও হেসেছে এর জন্য ওকে হ্যাটস অফ, আর এতো স্যাকরিফাইস করেছে ও আমার জীবনে ও খুশি হবে না এটা ভাবাটা তোমাদের ভুল, এমন ভেবো না। ভালো থেকো, সুস্থ থেকো’। 

স্ত্রীকে নিয়ে এর আগেও নানান ট্রোলের সম্মুখীন হয়েছেন স্নিগ্ধজিৎ। সারেগামাপার মঞ্চে নাটক করছেন স্নিগ্ধজিৎ, বাংলার মঞ্চে দ্বিতীয় হওয়াতে এই মঞ্চে সুবিধা পাচ্ছে, আবার নিজেকে গরীব হিসাবে তুলে ধরছেন। বাদ পড়েননি তাঁর স্ত্রী অদিতিও। সারেগামাপা মেগা অডিশনে অদিতির দেখা মিলেছিল ভিডিয়ো কলে। স্ত্রীকে দেখে কেঁদেছিলেন তিনি। আর সেই নিয়েও বিদ্রুপে শিকার হয়েছেন স্নিগ্ধজিৎ। স্ত্রীর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নিয়ে মিথ্যা রটনায় মর্মাহত গায়ক ফেসবুকে লাইভে জানিয়েছিলেন, ‘এখন ভগবানের দয়ায় আমাদের অবস্থা স্বচ্ছল। এমন দিন গেছে, তখন আমার কাছে রেওয়াজ করবার তানপুরা ছিল না। অদিতি নিজের রক্ত বেচে আমার তানপুরা এনেছে। সেই মেয়েটা আমাকে কোনওদিন ছেড়ে যাবে না’।

Related Articles

Back to top button