×
জীবনযাপনসৌন্দর্য

Skin Care Tips: ৭ দিনে মুখের কালো দাগ দূর করতে অনুসরণ করুন এই ৩ টিপস

Advertisement

ত্বক আমাদের সূর্যের অতিরিক্ত বেগুনি রশ্মি থেকে রক্ষা করে তাই আমাদের জরুরী ত্বকের যত্ন নেওয়া। তাই ত্বকের যত্নের কথা আসলে মহিলাদের সাথে পুরুষরদেরও এটিকে গুরুত্ব সহকারে নেওয়া উচিৎ, তবে বেশিরভাগ পুরুষই ত্বকের যত্নকে অবহেলা করেন। কারণ তাদের নিয়মিত ত্বকের যত্ন নেওয়া খুব কঠিন মনে হয়। ত্বক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাধারণত নারীরা তাদের ত্বক নিয়ে বেশি চিন্তিত থাকেন, তবে পুরুষদের ত্বকের যত্নেও তাদের ত্বকের যত্ন নেওয়া উচিত। বিশেষ করে যদি আপনার মুখে ইতিমধ্যেই ব্রণের দাগ পড়ে থাকে।

Advertisement

আসলে, গ্রীষ্মের মরসুমে, যখন ত্বক দীর্ঘক্ষণ সূর্যের সংস্পর্শে থাকে, তখন হাইপারপিগমেন্টেশনের সমস্যা আরও বাড়তে শুরু করে। মুখে দাগের মতো লাগে। অনেক প্রাকৃতিক প্রতিকার আছে যা ব্যবহার করে মুখের দাগ দূর করা যায়, তবে তার আগে কিছু বিষয়ের যত্ন নেওয়া আপনার জন্য জরুরি হয়ে পড়ে।

মুখের দাগ দূর করার টিপস-

Advertisement

১) মুখে সানস্ক্রিন লাগান:
গ্রীষ্মে প্রবল সূর্যালোক শরীরে মেলানিনের উৎপাদনকে প্রভাবিত করে। তাই ত্বকে কালো দাগ পড়তে শুরু করে। এই সমস্যা এড়াতে মুখে সানস্ক্রিন লাগাতে পারেন। আর একটা কথা, বেশিক্ষণ রোদে না থাকার চেষ্টা করুন, এতে সমস্যা বাড়তে পারে।

২) মুখে অ্যালোভেরা লাগানোর উপকারিতা:
অ্যালোভেরা মুখে লাগালে দাগ দূর হয়। আপনি এটি ফেসপ্যাক বা স্ক্রাব উভয়ের জন্যই ব্যবহার করতে পারেন। স্ক্রাবের জন্য, আপনি কফি পাউডার মিশ্রিত করতে পারেন এবং এটি মিশিয়ে প্রয়োগ করতে পারেন। এছাড়া লেবুর খোসার গুঁড়া ও মধু মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করা যেতে পারে।

৩) মুখে দই লাগালে উপকার পাওয়া যায়:
দই এমনই একটি জিনিস, যার সাহায্যে এটি ত্বকের কালো দাগ হালকা করতে সাহায্য করে। আপনি দই থেকে একটি ফেসপ্যাকও তৈরি করতে পারেন। কিছু না বুঝলে মধুর সঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগান। এই পেস্ট শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনি একবারেই পার্থক্য দেখতে পাবেন।

৪) বিশেষজ্ঞদের সাহায্য নেওয়া প্রয়োজন:
যদি আপনার মুখে বেশি কালো দাগ থাকে এবং এমনকি ঘরোয়া প্রতিকারও কাজ না করে, তবে আপনার ত্বক বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগ করা ভাল। তার পরামর্শ নিয়ে এগিয়ে যান।

এই তথ্যের যথার্থতা, সময়োপযোগীতা এবং সত্যতা নিশ্চিত করার জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করা হয়েছে। তবে এটা ভারত বার্তার নৈতিক দায়িত্ব নয়। দয়া করে কোনো প্রতিকার চেষ্টা করার আগে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করার জন্য অনুরোধ করছি আমরা। আমাদের উদ্দেশ্য শুধুমাত্র আপনাকে তথ্য প্রদান করা।

Related Articles

Back to top button