বলিউডবিনোদন

ছেলের সাথে পরিচয় করালেন শ্রেয়া ঘোষাল, ভালোবেসে কী নাম রাখলেন রাজপুত্রের?

×
Advertisement

বছর বয়সে প্রথম মা হন শ্রেয়া ঘোষাল। ২২ শে মে প্রথম সন্তানের মা হয়েছেন। বাড়ি ফিরেছেন ছেলেকে নিয়ে কিছুদিন আগেই। আজ নিজের ইন্সটাগ্রাম হ্যান্ডেলে ছেলের ছবি প্রথম প্রকাশ্যে আনলেন গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল। যেখানে শ্রেয়ার কোলে দেখা যায় ছোট্ট একরত্তিকে। নিজের ছেলের সাথে অনুরাগীদের পরিচয় করালেন। ছেলেকে ভালোবেসে নাম দিলেন ‘দেবযান মুখোপাধ্যায়’। শ্রেয়া এবং তাঁর একরত্তির পাশে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় গায়িকার স্বামী শিলাদিত্য মুখোপাধ্যায়কেও তিনিও নিজের হাত দিয়ে ছেলে ধরে রয়েছেন। এই ছবি শেয়ারের সাথে সাথে অনুরাগীরা ভালোবাসা জানিয়েছেন। সাথে সাথে ভাইরাল হয় শ্রেয়ার এই পোস্ট। তিনি এও বলেন যখন তিনি প্রথম দেবযানকে কোলে নেন সেই অনুভূতি সবচেয়ে আলাদা।

Advertisement

এই করোনা আবহে সদ্য মা বাবা হয়েছেন সুরেলাকন্ঠী শ্রেয়া ঘোষাল ও শিলাদিত্য। গত ২২ শে মে পুত্র সন্তানের জননী হয়েছেন ওই বঙ্গতনয়া। এই সুখবর সেদিন বিকেলের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সকল অনুরাগীদের সাথে এই সুখবরটি ভাগ করে নিয়েছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে অনুগামীদের উদ্দেশ্যে শ্রেয়া লিখেছেন, ‘পুত্রসন্তান দিয়ে ভগবান তাঁদের আশীর্বাদ করেছেন। এমন আবেগ আগে কখনোই অনুভূত হয়নি। তিনি শিলাদিত্য এবং তাঁর পরিবার দারুণ খুশি। আমাদের নতুন অতিথির জন্য সকলে যে প্রার্থনা করেছেন অনেক ধন্যবাদ জানাই তাদের।’

Advertisement

সম্প্রতি বাড়িতে বাড়িতে ছেলের আগমনে কোনো খামতি রাখেননি শ্রেয়া আর শিলাদিত্য। উদযাপন করলেন সুন্দর থিম দেওয়া কেক সাজিয়ে। ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে এই কেকের ছবি শেয়ার করে শ্রেয়া ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমাদের পুত্রসন্তানের জন্য স্বাগত-কেক৷’ সাদা নীল রঙের কম্বিনেশনে এই কেক সাজানো হয়েছে নানারকম টপিং দিয়ে এই কেকে আছে বিভিন্ন মাপের বোতাম, টেডি বিয়ার এবং কেক ৷ আর যা পছন্দ হয়।

প্রসঙ্গত,এক দশক ধরে ডেটিং করার পর নিজের কলেজ জীবনের প্রেমিক ও বাল্যকালের বন্ধু শিলাদিত্যকেই ২০১৫ সালের ৫ই ফেব্রুয়ারি  বাঙালি নিয়ম মেনে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। শিলাদিত্যর সঙ্গে সাতপাকে বাঁধার নানান সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। শ্রেয়া জানিয়ে ছিলেন, বিয়ের পর তাঁর জীবন অন্য রঙে সেজে উঠেছে। দুজনে টলি আর বলিউডের হ্যাপি ম্যারেড কাপল। এরপরই ৪ঠা মার্চ নিজের প্রথম অন্তঃসত্ত্বার খবর সোশ্যাল মিডিয়াতে অনুরাগীদের সাথে শেয়ার করেছিলেন।

Related Articles

Back to top button