টলিউডবলিউডবিনোদন

‘কিছুতেই মন ভরে না, ভালোবাসার নতুন মানে শেখালে তুমি ‘, দেবায়নের জন্য বার্তা নতুন মাম্মা শ্রেয়ার

×
Advertisement

গত ২২ মে প্রথম পুত্র সন্তানের জননী হয়েছিলেন ভারতবর্ষের জনপ্রিয় গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল । ছেলের জন্মের ১৩ দিনের মাথায় ছেলেকে নিয়ে প্রথমবার নিজের সকল অনুরাগীদের সামনে এসেছিলেন তিনি। ছবি শেয়ার করে নবাগতের নামও জানিয়েছিলেন। গায়িকা লিখেছিলেন, ‘পরিচয় করে নিন দেবয়ান মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে। গত ২২ মে উনি ভূমিষ্ঠ হয়েছেন এবং আমাদের গোটা জীবনটা এক্কেবারে পালটে দিয়েছেন…।”

Advertisement

ইতিমধ্যেই শ্রেয়ার ছেলে দেবয়ানের বয়স ২ মাস পার করে দিয়েছে। একটু একটু করে শ্রেয়ার নয়নের মনি চোখের সামনে বড় হয়ে উঠছে। এখন এই একরত্তিকে নিয়েই কাটছে শ্রেয়ার সারাটা দিন। তিনি যতই ব্যস্ত গায়িকা হোক না কেন তিনি এখন সব কাজ ভুলে নিকের মাতৃত্বের স্বাদ উপভোগ করছেন শ্রেয়া। মা হওয়ার পর বারবারই সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়ালে নিজের নানান অনুভূতির কথা তুলে ধরেন শ্রেয়া । ছেলে’কে নিয়ে নিজের সকল অনুরাগীদের নানান আপডেট দিচ্ছেন গায়িকা।

Advertisement

কখনও নিজের প্রথম মাতৃত্ব, তো কখনও ছেলেকে নিয়ে তাঁর একাধিক অভিজ্ঞতাও শেয়ার করেন। সোমবার ছেলে দেবয়ানের সাথে কাটানো এক মিষ্টি মুহূর্ত ফের নিজের অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করলেন গায়িকা। এই ছবিতে দেখা গেল ছেলের দিকে অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রয়েছেন শ্রেয়া। আর এই একরত্তির দৃষ্টিও চোখ আটকে রয়েছে মায়ের মুখে। এ যেন বড় শান্তি এক মায়ের কাছে। এই আদুরে ছবির ক্যাপশনে মনের ভাব উজার করে দিয়েছেন শ্রেয়া।

এই ছবির সাথে ক্যপাশানে লিখলেন, ‘‘সবসময় আমার দু’হাতের মধ্যে রয়েছো তুমি… তবু যেন সম্পূর্ণভাবে তোমাকে পাচ্ছি না আমি । আমার হৃদয় এখন থেকে শুধুমাত্র তোমার, সারাজীবনের জন্য । কী ভাবে, কত সাধারণভাবে আমার জীবনে তুমি চলে এলে, আর জীবনে ভালবাসার মানেটাই বদলে দিলে । আমার ছোট্ট সোনা দেবয়ান.. মাম্মা খুব ভালবাসে তোমায় ।’’

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে ছোটবেলার বন্ধু শিলাদিত্য মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন। দশ বছর চুটিয়ে প্রেম করেছেন শ্রেয়া-শিলাদিত্য। বিয়ের ছয় বছরের মাথায় প্রথম সন্তানকে স্বাগত জানালেন দুজনে। শ্রেয়ার স্বামী শিলাদিত্য পেশায় একজন তথ্য প্রযুক্তি কর্মী পাশাপাশি একটি ওয়েবসাইটের যুগ্ম কর্তা। দুজনে এখন ছেলেকে নিয়ে সুখে শান্তিতে সংসার করছেন।

Related Articles

Back to top button