ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

নিয়মিত ৫ হাজার টাকা জমিয়ে পান ২২ লাখ টাকা রিটার্ন, সঞ্চয়ে পাবেন ৯ গুণ পর্যন্ত বেনিফিট

আপনি যদি ভবিষ্যতের কথা ভেবে বড় সঞ্চয় প্রকল্পে নিবেশ করতে চান তাহলে এটা আপনার জন্য সবথেকে ভালো সুযোগ

×
Advertisement

দেশের বৃহত্তম ব্যাংক স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া কিন্তু একই সাথে মিউচুয়াল ফান্ড চালিয়ে থাকে। আপনারা অনেকেই এই ব্যাপারে অবগত না হলেও, এসবিআই এর মিউচুয়াল ফান্ড অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং অনেকেই এই মিউচুয়াল ফান্ডে কিন্তু ইনভেস্টমেন্ট করে থাকেন। এর অধীনে ছোট ক্যাপিটাল থেকে মিডিয়াম ক্যাপিটাল এবং লার্জ ক্যাপিটাল মিউচুয়াল ফান্ড বিনিয়োগকারীদের সুযোগ দেওয়া হয়ে থাকে। রিটার্নের পরিপ্রেক্ষিতে এসবিআই মিউচুয়াল ফান্ড তার বিনিয়োগকারীদের অন্যান্য ফান্ডের তুলনায় অনেক বেশি রিটার্ন দিয়ে থাকে। আপনি যদি দশ বছরের রিটার্ন চার্ট দেখে নেন তাহলে এসবিআই মিউচুয়াল ফান্ড বিনিয়োগকারীদের প্রায় ৯ গুণ বেশি রিটার্ন দিয়ে থাকে। তবে আরো বেশি লাভ পেতে হলে আপনাকে এসআইপি এর মাধ্যমে বিনিয়োগ করতে হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক এই মিউচুয়াল ফান্ডের ব্যাপারে বিস্তারিত।

Advertisement

প্রথমত, এসবিআই স্মল ক্যাপিটাল ফান্ড সম্পর্কে কথা বলা যাক। এই তহবিল ১০ বছরে ২৫ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে এবং যারা এই তহবিলে ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছেন দশ বছর পরে তারা ৯ লক্ষ টাকা রিটার্ন পেয়ে গিয়েছেন। এটি দিয়ে যারা এই তহবিলের ৫০০০ টাকার এসআইপি শুরু করেছিলেন তারা ২২.৫ লাখ টাকার তহবিল পেয়েছেন এবং এসবিআই স্মল ক্যাপ মিউচুয়াল ফান্ড বিনিয়কারীদের জন্য দারুন লাভবান প্রমাণিত হয়েছে।

এসবিআই টেক অপরচুনিটি ফান্ড বিগত ১০ বছরে বিনিয়োগকারীদের ১৮ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে এবং যারা এক লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন তারা দশ বছরে ৫.২৮ লক্ষ টাকা ঘরে তুলতে পেরেছেন। এই তহবিলে ৫,০০০ টাকার মাসিক এসআইপি বিনিয়োগকারীদের ১৫.৫ লক্ষ্য টাকা পর্যন্ত রিটার্ন দিতে পেরেছে।

Advertisement

এসবিআই ম্যাগনাম মিডক্যাপ ফান্ডে ১০ বছরে বিনিয়োগকারীদের ২০ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে। এই তহবিলে ১ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে দশ বছরে ৬.১৬ লক্ষ টাকা তুলতে পেরেছেন বিনিয়োগকারীরা। ৫০০০ টাকা এসআইপি এর মাধ্যমে এই তহবিলে সাড়ে ১৬ লক্ষ টাকা পাওয়া গিয়েছে। এর বাইরে এসবিআই কনজামশন অপরচুনিটিস ফান্ড ১০ বছরে ১৭.৮৭% রিটার্ন দিয়েছে। এই আমানত ১০ বছরে ১ লাখ থেকে ৫.১৮ লক্ষ টাকা হয়ে গিয়েছে। যারা ৫০০০ টাকার এসআইপি করেছিলেন তারা ১৪ লক্ষ টাকার তহবিল পেয়ে গিয়েছেন।

Related Articles

Back to top button