বলিউডবিনোদন

২৬শে পা দিলেন সারা! নিজের জন্মদিনে বিশেষ বার্তা দিলেন বার্থডে গাল

×
Advertisement

বলিউডের নবাগত নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা তিনি। বি-টাউনের পতৌদি পরিবারের বড় সন্তান সারা। সইফ আলি খান ও অমৃতা সিং এর কন্যা। ২০০৪ সালে সইফ-অমৃতার বিয়ে ভেঙে যাওয়ার সময় সারার বয়স ছিল ৯ বছর। তার পর তিনি তাঁর ভাই ইব্রাহিমের সঙ্গে বড় হন অমৃতার কাছেই। তা বলে বাবার প্রতি ভালোবাসা কমেনি। বাবা ও সৎ মা করিনা কাপুর খানকে ও বেশ সম্মান করেন অভিনেত্রী। এমনকি বাবার সাথে থাকলে তৈমুর আলি খান আর নতুন সদস্য জেহকে নিয়ে সারাদিন থাকেন।

Advertisement

কেরিয়ারের শুরু থেকেই নেপোটিজম বিতর্কে নাম জড়ায় এই স্টারকিশ। এমনকি প্রাক্তন প্রেমিক তথা অভিনেত্রী সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর একের পর এক বিতর্কে নাম উঠে আসে সারার। তবে সব কঠিন পরিস্থিতি হাসি মুখে জয় করেন তিনি। অভিনেত্রীর হাতে আছে এখন অনেকগুলি প্রজেক্ট। অভিনেত্রীর। দেখতে দেখতে সারা এখন অনেকটাই বড় হয়ে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার ২৬-এ পা দিলেন সইফের বড় কন্যা। 

বুধবার মধ্যরাত থেকেই নিজের বিশেষ দিনে সমস্ত বন্ধুদের সঙ্গে চুটিয়ে নিজের ২৬ তম জন্মদিনট উদযাপন করতে দেখা গিয়েছে সারাকে। এই দিন গোলাপি বেলুনে সাজানো হয়েছিল অভিনেত্রীর ঘর। এমনকি বার্থডে পার্টির নানান ছবি সবই উঠে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়ার পাতাতে।

Advertisement

এই বিশেষ দিনে নিজের ২৬টি বছরের বাছাই করা কিছু সুন্দর মুহূর্তের ভিডিয়ো কোলাজ করে নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে তুলে ধরেছেন সারা। এই ভিডিয়োর ক্যাপশনে সারা লেখেন, ‘২৫টা বসন্ত পার করে ফেললাম! বেঁচে থাকার, হাসার আর ভালোবাসার ২৬ বছর’।  এই ভিডিও দেখে সারার পিসি থেকে বন্ধুরা ভালোবাসা জানিয়েছিলেন।

এদিন ইন্ডাস্ট্রির সকল নায়ক নায়িকা থেকে পরিচালকদের তরফ থেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অভিনেত্রীকে। তবে সবচেয়ে সেরা ছিল সইফের দ্বিতীয় পত্নী করিনার শুভেচ্ছা। সৎ মেয়ে সারার এক ভাইরাল বোল্ড ফটোশ্যুটের ছবি পোস্ট করে করিনা লেখেন- ‘শুভ জন্মদিন সুন্দরী….জীবনের সেরা জন্মদিন হোক এটাই’। 

  
জন্মদিনের দিন এক বিশেষ বার্তাও সকল অনুরাগীদের সামনে রাখেন সারা। তিনি বলেন, তিনি সত্যি খুব সৌভাগ্যবান যে জীবনের এমন একটা বিশেষ দিনে নিজের পরিবারের সকলের সঙ্গে কাটানোর সুযোগ পাচ্ছেন। কিন্তু অতিমারীতে বহু শিশু তাঁদের বাবা-মা’কে হারিয়েছে। তাই সকলকে তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর আবেদন জানান বার্থডে গার্ল।

Related Articles

Back to top button