ভাইরাল & ভিডিও

Viral: বাড়ির ছাদে লাল নীল লেহেঙ্গায় ‘ওড়নি’ গানে উদ্দাম নাচ এক যুবতীর, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়া মানুষের কাছে তাদের বিনোদনের অন্যতম প্রধান মাধ্যম হয়ে উঠেছে। এখন অধিকাংশ মানুষই নিজেদের অবসরের বেশিরভাগ সময়টাই কাটান এই সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিনোদন মাধ্যম হওয়ার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়া যেকোনো মানুষের প্রতিভাকে সকলের সামনে তুলে ধরার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্মও বটে। এখন প্রায়ই সকলে নিজেদের প্রতিভাকে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সকলের সামনে আনতে চান।

প্রতিদিন প্রতি মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে। কেউ নিজের নাচের, কেউ গানের, কেউবা আঁকার, আবার কেউ নিজের শিল্পীসত্তাকে প্রকাশ করতে চান এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই। বর্তমান যুগের সোশ্যাল মিডিয়া মানে কোন একটি নির্দিষ্ট প্ল্যাটফর্ম নয়, এক্ষেত্রে মানুষের সামনে খোলা রয়েছে অনেকগুলো রাস্তা। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব, টুইটার, স্ন্যাপচ্যাট ইত্যাদির মতো একাধিক প্ল্যাটফর্ম রয়েছে মানুষের সামনে, যার মাধ্যমে তারা বিভিন্নভাবে নিজেদের প্রতিভাকে তুলে ধরতে সক্ষম হন।

সাম্প্রতিক যুগে এই সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরেই তরুণ প্রজন্মের অনেকেই নিজেদের প্রতিভাকে পৌঁছে দিতে পেরেছেন বহু মানুষের কাছে। নেটদুনিয়ার মাধ্যমে তাদের পরিচিতি এসেছে অনেকের মধ্যে। সম্প্রতি তেমনি একটি তরুণ যুবতীর নাচের ভিডিও ঝড়ের গতিতে ছড়িয়ে পড়েছে নেট নাগরিকদের মধ্যে।

সঞ্চিতা বাসু (Sanchita Bashu) নামের মেয়েটি বলিউড খ্যাত ছবি ‘তেরে নাম’এর জনপ্রিয় গান ‘ওড়নি’তে নিজের বাড়ির ছাদে নেচে রিল ভিডিও বানিয়েছেন। ছবিতে এই গানটি উদিত নারায়ন ও আলকা ইয়াগ্নিকের কন্ঠে শোনা গিয়েছিল। পর্দায় ছিলেন সালমান খান ও ভূমিকা চাওলা। এই ভিডিওতে মেয়েটিকে লাল ও নীল রঙের কম্বিনেশনে ঘাগড়া-চোলিতে দেখা গিয়েছে। তার নাচ দেখেই স্পষ্ট তিনি এই ধরনের ভিডিও বানাতে সাবলীল। তার সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলোয়ার্সের সংখ্যা মিলিয়নে কথা বলে। তাকে ইনস্টাগ্রামের রিলস্টার বললে ভুল বলা হবে না।

এই ধরনের ভিডিও বানানোর মাধ্যমে তারা একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থও আয় করেন। কেউ যদি ক্রমাগত নাচ কিংবা গানের ভিডিও দিতে থাকেন বা নিজের শিল্পীসত্তাকে প্রমাণ করার জন্য পোস্ট করতে থাকেন এবং তা যদি ক্রমাগত ঐ নির্দিষ্ট নেটিজেনের ফলোয়ার্স সংখ্যা বাড়াতে থাকে তাহলে তার উপর ভিত্তি করে ঐ নেটিজেন একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ পেয়ে যাবেন। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে এটাও বর্তমান প্রজন্মের কাছে উপার্জনের অন্যতম মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে।

Related Articles

Back to top button