ভাইরাল & ভিডিও

Ranu Mondal: বিয়ের সাজে ‘টুম্পা সোনা’ গাইলেন রানুদি, হাসি থামছে না নেটমহলের একাংশের

Advertisement
Advertisement

সমাজকর্মী অতীন্দ্র চক্রবর্তীর দৌলতে সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরেই মানুষের মাঝে সাময়িক স্টার হয়েছিলেন রানাঘাটের রানু মন্ডল। একটা সময় রানাঘাটের স্টেশনে বসে গান গেয়ে ভিক্ষা করতেন তিনি। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই তার জনপ্রিয়তা ছড়িয়ে যায় বহু মানুষের মাঝে। তৈরি হয় ঠুনকো সম্মানের প্রাচীর। যার জন্য এখন তিনি আর স্টেশনে বসে ভিক্ষাও করতে পারেন না। প্রতিমুহূর্তে নেটনাগরিকদের অধিকাংশের মাঝে কটাক্ষের শিকার হতে হয় তাকে। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সাময়িক জনপ্রিয়তা পেলেও বর্তমানে তিনি আবারো ফিরে এসেছেন তার পুরনো জায়গাতেই।

Advertisement
Advertisement

বর্তমানের ইউটিউবারদের কাছে রানু মন্ডল একজন কমেডি কনটেন্ট হয়ে উঠেছেন। তাকে নিয়ে ভিডিও বানানোর জন্য প্রায়ই বহু ইউটিউবাররা পৌঁছে যান রানু মন্ডলের রানাঘাটের বাড়িতে। সেখানেই তার অদ্ভুত কান্ডকারখানা গুলোকে ক্যামেরাবন্দি করে সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় শেয়ার করে দেন তারা, যা ভাইরাল হয় নিমেষে। এই ভিডিওগুলির সূত্র ধরেই নেটনাগরিকদের একাংশের মাঝে থেকে থেকেই তুমুল কটাক্ষের শিকার হন রানু মন্ডল। তবে এর প্রতিবাদও জানান বহু নেটিজেন। কারণ অনেকের মতে, একজন মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলাকে কখনোই এইভাবে সকলের সামনে অপদস্ত করা উচিৎ নয়।

Advertisement

Advertisement
Advertisement

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় রানা রায় নামক এক ব্যক্তি তার ফেসবুক প্রোফাইল থেকে একদিন আগে রানু মন্ডলের একটি ভিডিও শেয়ার করে নিয়েছেন, যা নিয়েই আপাতত মেতে নেটদুনিয়ার একাংশ। ভিডিওটি শেয়ার করে রানা রায় নামক ব্যক্তিটি ক্যাপশনে লিখেছিলেন,
“বিয়ের জন্য পাত্রী রেডি ,,👰
পাত্র চাই,,যোগাযোগ,707310****📞”।
সাম্প্রতিক ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে রানু মন্ডলকে দেখা গিয়েছে একেবারে বিয়ের কনের সাজে। আর এই সাজেই ‘টুম্পা সোনা’ গানটি রানু মন্ডলকে হাত পা নাড়িয়ে গাইতে শোনা গিয়েছে। এই দৃশ্য খুব স্বাভাবিকভাবেই ভাইরাল হওয়ার পর থেকে হাসি থামাতে পারছেন না নেটদুনিয়ার একাংশ। কটাক্ষের সুরে নানা কথাও বলতে শোনা গিয়েছে নেটনাগরিকদের। সেই ঝলক অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওর কমেন্টবক্সে চোখ রাখলেই মিলবে।

Advertisement

Related Articles

Back to top button