ক্রিকেটখেলানিউজ

বুমরা-বোল্ট দাপটে হারের হ্যাটট্রিক করল রাজস্থান রয়্যালস

Advertisement

আবুধাবি: এই হার শুধু দলগত হার নয়। এই হার একটা রেকর্ডকে বজায় রাখতে না পারার হার। মঙ্গল সন্ধ্যায় আবুধাবির বাইশ গজে মুখোমুখি হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস এবং মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। কিন্তু নীতা আম্বানির দল প্রত্যেক বছর আইপিএলে অন্যান্য দলকে হারাতে সক্ষম হলেও গত পাঁচ বছর ধরে শিল্পা শেট্টি কুন্দ্রার দলকে হারাতে পারেনি। কিন্তু সেই না পারাকে আবুধাবির সবুজ গালিচায় করে দেখালেন নীল জার্সির বোলাররা। হার প্রায় নিশ্চিত ছিল। তবুও দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করে যাচ্ছিলেন জশ বাটলার। কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হল না। অবশেষে ৫৭ রানে হেরে আইপিএলে হারের হ্যাটট্রিক করল রাজস্থান রয়্যালস।

এ দিন টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করে রাজস্থানের সামনে ১৯৪ রানের টার্গেট রেখেছিল মুম্বই৷ জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই পরপর উইকেট হারাতে থাকে রাজস্থান৷ ট্রেন্ট বোল্ট এবং যশপ্রীত বুমরার দুরন্ত বোলিংয়ের সামনে একে একে ফিরে যান যশস্বী জয়সওয়াল, স্টিভ স্মিথ, সঞ্জু স্যামসনরা৷ কিন্তু একা লড়ছিলেন জশ বাটলার৷ তিনি যতক্ষণ ক্রিজে ছিলেন, মনে হচ্ছিল পাঞ্জাব ম্যাচের মতোই আবারও অঘটন ঘটালেও ঘটাতে পারে রাজস্থান৷ মুম্বইয়ের হয়ে এদিন দু’টি করে উইকেট নেন ট্রেন্ট বোল্ট এবং জেমস প্যাটিনসন৷ কিন্তু বল হাতে যা পারফরম্যান্স দিলেন যশপ্রীত বুমরা, তা খুবই প্রশংসাযোগগ্য। চার ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন তিনি।

কিন্তু বাটলার লড়লেও শেষ রক্ষা হল না। ৪৪ বলে ৭০ রানের মাথায় প্যাটিনসনের বলে অবিশ্বাস্য ক্যাচে বাটলারকে ফিরিয়ে দেন কায়রন পোলার্ড৷ অবশেষে পাঁচ বছর পর রাজস্থান রয়্যালসকে হারাতে সক্ষম হল নীতা আম্বানির দল। এই হারের ফলে অনেকটাই লিগ টেবিলে নিচে নেমে গেল রাজস্থান রয়্যালস।

 

Tags

Related Articles

Back to top button