দেশনিউজভাইরাল & ভিডিও

রাস্তার ঠেলা গাড়ি থেকে ডিম চুরি পুলিশ কনস্টেবলের, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও

×
Advertisement

বর্তমানের যুগে আট থেকে আশি সবাই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকে। কাজের ফাঁকে সময় অতিবাহিত করার জন্য সবাই সোশ্যাল মিডিয়া জগতে বিচরণ করে বিভিন্ন হাসির ভিডিও বা শিক্ষামূলক ভিডিও দেখে থাকে। নেটিজেনরা সোশ্যাল মিডিয়াতে এসে তাদের পছন্দের ভিডিওগুলিকে প্রচুর পরিমাণে শেয়ার করে যা ভাইরাল করে তোলে ভিডিওটিকে। এই করোনা পরিস্থিতিতে প্রত্যেকেই বাড়িতে থেকে সময়যাপন করার পথ খুঁজে পাচ্ছে না। তবে ফেসবুকের পাতায় ভাইরাল ভিডিও দেখতে দেখতে অনেকেই সময় কাটিয়ে দিচ্ছে। সম্প্রতি এক পুলিশের চুরি করার গোপন ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক ভাইরাল হয়ে গেছে।

Advertisement

কথায় আছে, রক্ষকই ভক্ষক। এই কথাটি রোজকার জীবনে বারংবার প্রমাণ হয় নতুন নতুন উদাহরণ নিয়ে। যদি পুলিশই চুরি করে তাহলে ব্যবস্থা নেবে কে? শুনে অবাক হলেন তো যে পুলিশ নিজেই চোর। আসলে সম্প্রতি সত্যিই এমন একটি ঘটনা ঘটেছে। সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ কয়েকদিন ধরে ভাইরাল হচ্ছে একটি ভিডিও যাতে দেখা গিয়েছে যে বিক্রেতার অনুপস্থিতিতে ডিম চুরি করছে খোদ পুলিশ কনস্টেবল। এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়ার পর পাঞ্জাব পুলিশ একটি টুইট করে জানায় যে তারা সংশ্লিষ্ট কর্মীর বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থাগ্রহণ করেছে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে এক উর্দিধারী পুলিশ কনস্টেবল রাস্তার পাশে দাঁড় করানো একটি ডিমের ঠেলা থেকে বিক্রেতার অনুপস্থিতিতে একটি একটি করে ডিম নিজের উর্দির পকেটে ঢুকিয়ে নিচ্ছে। জানা গিয়েছে ভিডিওর পুলিশ কনস্টেবলের নাম প্রীতপাল সিংহ। সে পাঞ্জাব পুলিশের একজন হেড কনস্টেবল। এই ভিডিও পাঞ্জাব পুলিশ নিজেই টুইট করে লিখেছে, “ফতেহগড় সাহিব পুলিশের হেড কনস্টেবল প্রীতপাল সিংহ ডিম বিক্রেতার অনুপস্থিতিতে তার গাড়ি থেকে ডিম চুরি করে ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত হচ্ছে এবং আপাতত সাসপেন্ড করা হয়েছে।”

Advertisement

ভিডিও সম্বন্ধে নেটিজেনরা প্রচুর পরিমাণে কমেন্ট করেছে। কেউ কেউ বলেছে এরকম পুলিশের লোক থাকার জন্যই দেশে অরাজকতা এত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আবার কেউ কেউ ভিডিওটিকে মজার ছলে নিয়েছে। আবার অনেকে বলেছে যে চুরি করা অবশ্যই অপরাধ। কিন্তু ওই হেড কনস্টেবল কেন চুরি করতে গেল তা তদন্ত করে জানা উচিত। এমনকি এই কথার পক্ষপাতিত্ব করেছে অনেকেই। অনেকের মতেই পুলিশের মত নিষ্ঠাবান কাজের সাথে যুক্ত ওই ব্যক্তি হয়তো কোনো পরিস্থিতির শিকার হয়ে এই কাজ করতে বাধ্য হয়েছে। চুরি করার জন্য তাকে শাস্তি দেওয়া হলেও তার এরকম কাজ করার প্রকৃত কারণ সম্বন্ধে জানাটা খুবই দরকার।

Related Articles

Back to top button