বলিউডবিনোদন

বলিউড কিংবদন্তি রাজ কাপুর-দিলীপ কুমারের পৈতৃক বাড়ি কিনে নিচ্ছে পাকিস্তান

×
Advertisement

এবারে পাকিস্তান সরকার গ্রাস করতে চলেছে রাজ কাপুর ও দিলীপ কুমারের ভিটে। পেশওয়ার শহরের একদম মাঝখানে অবস্থিত এই ভবনদুটিকে আগেই হেরিটেজ বিল্ডিং হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। অবশ্য, পাক সরকার এই বাড়িগুলি অধিগ্রহণ করে নিয়ে সেগুলি ঐতিহাসিক ভবন হিসেবে (national heritage) সংরক্ষণ করবে বলে জানা গিয়েছে।

Advertisement

এই দুই কিংবদন্তী বলিউড তারকা রাজ কাপুর ও দিলীপ কুমারের বিশালাকার বাড়ি কিনে নেওয়ার জন্য ইতোমধ্যেই বাজেট স্থির করেছে পাকিস্তানের খাইবার-পাখতুনওয়া প্রদেশের আর্কিওলজি বিভাগ।

Advertisement

জানা অজানা কথায় সংক্ষেপে দিলীপ কুমার

দিলীপ কুমার পাকিস্তানের খাইবারে মুহাম্মদ ইউসুফ খান নাম নিয়ে একটি মুসলিম সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ব্রিটিশ শাসন চলাকালীন, ১৯৩০ সালে শেষ সময়ে, ১২ সদস্যর পরিবার নিয়ে মুম্বাইয়ে পাড়ি দেন দিলীপ কুমারের পরিবার। ১৯৪৪ সালের “জোয়ার ভাটা” চলচ্চিত্রটির মধ্যে দিয়ে দিলীপ কুমার হিন্দি চলচিত্র জগতে প্রবেশ করেন। ১৯৪৭ সালে “নুর জাহানের” বিপরীতে “জঙ্গু” বক্স অফিসে হিট হয়। এরপর অসংখ্য মুভি করেন দিলীপ কুমার। একধিক ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার পান তিনি। ব্যক্তিগত জীবনে সায়রা বানুকে বিয়ে করেন দিলীপ কুমার।

বর্তমানে দিলীপ কুমারের পৈতৃক বাড়ির অবস্থা খুবই শোচনীয়। ভগ্নপ্রায় বাড়ি দু’টি ইতিমধ্যেই জাতীয় হেরিটেজ ঘোষণা করেছে খাইবার পাখতুনখোয়া রাজ্য সরকার।

জানা অজানা কথায় সংক্ষেপে রাজ কাপুর

পাঞ্জাবী হিন্দু পরিবারের সন্তান রাজ কাপুরের বাবা ছিলেন পৃথ্বীরাজ কাপুর ও মায়ের নাম ছিল রমাস্বামী ‘রমা’ দেবী কাপুর। রাজ কাপুরের দাদু দেওয়ান বশেশ্বরনাথ কাপুর পাকিস্তানের কুইসা খাওয়ানি (Qissa Khwani Bazar in Peshawar) বাজারে একটি বাড়ি নির্মাণ করেন, যার নাম দেন ‘কাপুর হাভেলি’ (Kapoor Haveli)। যেই বাড়িটির বর্তমান অবস্থা খুবই শোচনীয়। সরকারি সূত্রে খবর, আলি কদর বাড়িটির দাম চেয়েছেন পাকিস্তানি মুদ্রায় ২০০ কোটি টাকা। অন্যদিকে মোটা অঙ্কের টাকা হেঁকেছেন দিলীপ কুমারের বাড়ির মালিকও।

যাইহোক, কাপুর পরিবার মানেই বলিউডে একটা আলাদা ক্রেজ। রাজ কাপুর থেকে শুরু করে রণবীর, করিনা। প্রথম থেকেই কাপুর পরিবারের এক আধিপত্য তৈরি করেছিলেন রাজ কাপুর। ১৯৩৫ সালে ‘ইনকিলাব’ চলচ্চিত্রে মাত্র দশ বছর বয়সে প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণ ঘটে এই কিংবদন্তী তারকার। পরবর্তী ১২ বছরে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর ১৯৪৭ সালে বড় ধারণের সুযোগ পান নীল কমল চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। ১৯৪৮ সালে চব্বিশ বছরের যুবক রাজকাপুর নিজস্ব স্টুডিও প্রতিষ্ঠিত করেন আর. কে. ফিল্মস নামে।

ইসলামাবাদ সূত্রে খবর, ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতের দুই তারকা রাজ কাপুর ও দিলীপ কুমারের ভগ্ন ভবনদুটি নিজেদের জিম্মায় রাখতে চায় পাকিস্তান সরকার।

Related Articles

Back to top button