টেক বার্তা

বাজারে আসছে সবচেয়ে হালকা ইলেকট্রিক বাইক, ঘন্টা গতিবেগ ১২০ কিমি

Advertisement

জার্মানির একটি স্টার্ট আপ কোম্পানি Novus খুব শীঘ্রই একটি অত্যন্ত কম ওজনের ইলেকট্রিক বাইক লঞ্চ করতে চলেছে। এর আগে কোম্পানিটি ২০১৯ সালে লাস ভেগাসের CES অনুষ্ঠানে প্রথম বাইকটির প্রোটোটাইপ প্রকাশ করেছিল। এই বাইকটি আপনি এখন অর্ডার করলে পাবেন ২০২২ সালে। বাইকের দাম প্রায় ৫০০০০ ইউরো যা একটি টেসলা মডেল ৩ গাড়ির দামের সমান। ইলেকট্রিক বাইকটির দাম একটি Tesla model 3 এর সমান হওয়ার আদেও কতটা যৌক্তিকতা আছে জানতে প্রতিবেদনটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

Novus কোম্পানির ইলেকট্রিক বাইকটির বিশেষত্ব হল এর কম ওজন। এই বাইকের পুরো বডি ফ্রেম ও সমস্ত যন্ত্রপাতি যেমন চাকার রিম, ফর্ক সমস্ত কার্বন ফাইবারের তৈরি। এর জন্য বাইকটির ওজন মাত্র ৭ কিলোগ্রাম। ব্যাটারি সহ বাইকটির ওজন ৭৫ কিলোগ্রাম। বাইকটি তৈরিতে দামি কার্বন ফাইবার এর ব্যবহারের ফলে বাইকটির এত কম ওজন করা সম্ভব হয়েছে। কম ওজন হওয়া সত্ত্বেও ইলেকট্রিক বাইকটি প্রায় ১২৫ কেজি ওজন নিতে পারবে।

এরপর আসা যাক, Novus কোম্পানির ইলেকট্রিক বাইকটির স্পেসিফিকেশন সম্বন্ধে। এই সিঙ্গেল সিটার বাইকে ১৮ কিলোওয়াট এর একটি মোটর আছে যা ২৪ হর্সপাওয়ার উৎপন্ন করতে পারে। এই বাইকটির সর্বোচ্চ গতি ১২০ কিমি প্রতি ঘন্টা এবং ০-৫০km/h যেতে সময় নেয় মাত্র ৩ সেকেন্ড। একবার পুরো ব্যাটারি চার্জ হলে, ১০০ কিমি অব্দি যাওয়া যেতে পারে। এই বাইকে অত্যাধুনিক কি লেস প্রযুক্তি আছে অর্থাৎ আপনার স্মার্টফোনের এনএফএসসি দ্বারা বাইক আনলক করতে পারবেন। এছাড়াও মাত্র ১ ঘণ্টাই বাইকের ৮০ শতাংশ ব্যাটারি চার্জ করা যেতে পারে।

ইলেকট্রিক বাইকটির স্পেসিফিকেশন ও ডিজাইন গ্রাহকদের আকর্ষণ করলেও প্রধান সমস্যা বাইকটির দাম। বাইকের দাম টাক্স ছাড়াই ৩৯৯০০ ইউরো। এরপর অন রোড বাইকটির দাম প্রায় ৫০০০০ ইউরো হয়ে যাবে যা একটি Tesla model 3 এর দামের সমান। এছাড়াও, আপনি এখন বাইকটি বুক করলে আপনাকে এখন দিতে হবে ১০০০ ইউরো। এই বাইক আপনি এখন অর্ডার করলে পাবেন ২০২২ সালে।

Tags

Related Articles

Back to top button