বলিউডবিনোদন

Salman Khan: সাপের কামড় খেয়েও জন্মদিনে ক্যামেরার সামনে হাসিমুখে দাঁড়ালেন ভাইজান, ভাইরাল ভিডিও

Advertisement

জন্মদিনের আগে ক্রিসমাসের রাতে সাপের কামড় খেয়েছেন বলিউডের ভাইজান সালমান খান। সাপের কামড় খাওয়ার পরেই তড়িৎ-ঘড়িৎ এমজিএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল অভিনেতাকে। জানা গিয়েছে, যে সাপের কামড় খেয়েছেন অভিনেতা, তা বিষাক্ত ছিল না। প্রাথমিক চিকিৎসা হওয়ার পর এবং ইনজেকশন নেওয়ার পর তিনি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। বর্তমানে তার প্রাণের কোনো ঝুঁকি নেই। চিকিৎসার পর বাড়ি ফিরে নিজের ফার্ম হাউজেই বেশ কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিয়েছিলেন তিনি।

Advertisement

২৭’শে ডিসেম্বর নিজের জন্মদিনের দিন মধ্যরাতে বলিউডের ভাইজান পাপারাজিৎদের ক্যামেরার সামনে এসে দাঁড়াতে ভুললেন না। তিনি নিজের ৫৬’তম জন্মদিন নিজের ফার্ম হাউজেই নিজের বন্ধু-বান্ধবদের সাথে পালন করবেন বলে ঠিক করেছিলেন। তার সেই জন্মদিন পালনের ঝলক দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন সকলে। তবে আপাতত মধ্যরাতের সেই চেনা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার পর্দায়।

Advertisement

২৭’এর মধ্যরাতে পানভেলের সামনে ভিড় জমিয়েছিলেন সমস্ত পাপারাজিৎরা। এদিন সকলের মন রাখার জন্যই প্রতিবছরের মতো এবারও মধ্যরাতে দুর্বল শরীর নিয়েই বাইরে বেরিয়ে সকলের উদ্দেশ্যে হাত নেরেছেন ভাইজান। তারা সকলে মহম্মদ রফির ‘বার বার ইয়ে দিন আয়ে’ গেয়েছেন ভাইজানের উদ্দেশ্যে। যা শুনে সালমান খানের মুখে ছিল একগাল হাসি। পাপারাজিৎদের মধ্যে একজন বলে বসেছেন তার হাসিটা খুবই সুন্দর। জবাবে সালমান খান বলেছেন, সাপের কামড় খাওয়ার পরেও এমন ভাবে হাসিমুখে দাঁড়ানো তার জন্য কঠিন।

সংবাদমাধ্যমের কাছে সালমান খান নিজে বক্তব্য রেখেছেন, তাদের পানভেলের খামারবাড়িতে একটি সাপ ঢুকে পড়েছিল। তিনি লাঠি দিয়ে সেই সাপটাকে তোলেন ও বাইরের জঙ্গলে ফেলে আসার চেষ্টা করেন। কিন্তু সেই সময় সাপটা তার হাতে উঠে আসে। তিনি এরপরে হাত দিয়ে সাপটিকে ধরতে গেলে তিনবার অভিনেতার হাতে কামড় বসায় সাপটা। হাসপাতালে চিকিৎসার পরে তিনি এখন সুস্থ বলেই জানিয়েছেন। তবে তিনি জানান সাপটিকে দেখে তার বিষাক্ত বলেই মনে হয়েছিল, তবে শেষপর্যন্ত গুরুতর কিছু হয়নি।

উল্লেখ্য সালমান খানের বাবা সেলিম খান জানিয়েছিলেন সাপটি বিষাক্ত না হওয়ায় তিনি ফার্মের কর্মচারীদের ফার্ম থেকে নিরাপদ দূরত্বে জঙ্গলে সাপটিকে ছেড়ে দিয়ে আসার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এই দু’ধরনের মন্তব্যের পর সাপটি আদেও বিষাক্ত ছিল কিনা সেই বিষয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।

Advertisement

Related Articles

Back to top button