টলিউডবিনোদনমিউজিক

Aditi Munshi : রাধাষ্টমীর পূর্ণ তিথিতে অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে নতুন কীর্তন উপহার কীর্তনীয়া অদিতির

ইনি সংগীত জগতের ‘রাইকিশোরী’। তাঁর কণ্ঠে কীর্তন যেন আলাদাই মাত্রা পায়। এই ধারার সঙ্গীতের একজন কীর্তনীয়ার নাম আগে মাথায় আসে। তিনি আর কেউ নয় অদিতি। অদিতির মুন্সিয়ানা বারে বারে ভক্তি রসে বুঁদ করেছে বাঙালি শ্রোতাকে। হরি নাম এখন সংকীর্তনের নতুন নক্ষত্র। জনপথে এককালে শ্রীচৈতন্য যা করতেন ইতিহাসে এখন অদিতি তাই করেন তবে নিজস্ব ঢঙে। তাঁর গানের সুরে বর্তমান প্রজন্ম হাতে গিটার না ধরেই অঙ্গ ভঙ্গির সঙ্গেই হাত তুলে হরি বল, হরি বল করে। প্রাচীন রিতি ভেঙে নতুন রুপ দেন আর এখানেই তাঁর মুন্সীয়ানা।

রাধাষ্টমী উপলক্ষে রাইকিশোরি নতুন কীর্তন প্রকাশ করলেন। আর নিজের নতুন কীর্তন নিজের সকল অনুরাগীদের সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে লিঙ্ক শেয়ার করেন। প্রতিবছর ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষে পালিত হয় রাধাষ্টমী। পুরাণে কথিত আছে এই দিন শ্রীরাধিকার জন্ম এই তিথিতে। এই বিশেষ দিনে বৈষ্ণব সম্প্রদায় ধুমধাম করে শ্রীরাধিকার পুজো করে।

তাই এই দিন অদিতি পদকর্তা গোবিন্দ দাস রচিত শ্রীরাধার পূর্বরাগ পর্যায়ের একটি রচনা রাধাষ্টমী উপলক্ষে বাছাই করেছিলেন। গানের নাম ‘দেখলাম চিকণকালা’। আর সেই গানের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করে অদিতি লেখেন, ‘করুণাময়ী ভগবান কৃপা না করলে এই সাধন ও মনন সম্ভব নয়। আর সাধক ভবাপাগলা বলেছেন, ‘গানই সর্বশ্রেষ্ঠ সাধনা’, তাই এই সংগীতের মধ্যে দিয়েই সেই পরমেশ্বরের চরণ বন্দনা করি’ | এই নতুন কীর্তন শেয়ার করার সাথে সাথে অনুগামীরা ভালোবাসা জানিয়েছেন।

অদিতির নতুন গানে যন্ত্রানুষঙ্গে সহায়তা করেছেন সুভাষ বসু, সৌম্যজ্যোতি ঘোষ, মৃগনাভি চট্টোপাধ্যায় এবং সোমনাথ রায় ৷ আর এই নতুন পুরো গানের শ্যুট করা হয়েছে বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারের বনেদি বাড়ির সাবেক পরিবেশে। একদিকে বিধায়ক পদের দায়িত্ব সামলানো থেকে নিজের সংগীত চর্চায় কোনোরকম খামতি রাখেননি এই কীর্তন গায়িকা।

উল্লেখ্য, গায়িকা গান করার পাশাপাশি পুজো করতেও বেশ ভালোবাসেন। সম্প্রতি কিছুদিন আগেই পালিত হয়েছে জন্মাষ্টমী৷ কীর্তনীয়ার বাড়িতে সাতটি গোপাল আছে। আর তাঁদের নিত্য সেবা করেন অদিতি। জন্মাষ্টমী তিথিতে প্রাণভরে উৎসবের আয়োজন করেছিলেন গায়িকা। শাশুড়ি মা এবং অদিতি মিলে রান্নার সমস্ত আয়োজন করেন। এইদিন গোপালকে দুধ গঙ্গাজলে স্নান করিয়ে নতুন পোশাক পরিয়ে দিয়েছেন। ভোগের মধ্যে এই বছর নিজের হাতে রেঁধেছিলেন পোলাও, ফ্রায়েড রাইস, পাঁচ রকম ভাজা, লুচি, তরকারি, নাড়ু, তালের বড়া, মালপোয়া, ১২ রকমের মিষ্টি, আর ছিল ক্যাডবেরি, পায়েস। আর এই সাজের ভিডিও নিজেই শেয়ার করলেন অদিতি।


 

Related Articles

Back to top button