নিউজরাজ্য

নরেন্দ্র মোদিকে উৎসর্গ করে তৈরি করা হলো আস্ত মন্দির, উদ্বোধনের মাত্র ৭২ ঘণ্টার মধ্যে যা হল, কল্পনার অতীত….

স্বাধীনতা দিবসের দিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উৎসর্গ করে একটি মন্দির উদ্বোধন করেন মহারাষ্ট্রের পুনের একজন সক্রিয় বিজেপি নেতা ময়ূর মূন্দে।



প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নানা রকম কাজে উদ্বুদ্ধ হয়ে থাকে উৎসর্গ করে একটি মন্দির বানিয়ে ছিলেন পুনের আউন্দ এলাকার একজন বিজেপি নেতা যার নাম ময়ূর মুন্দে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একটি আবক্ষ মূর্তি অব্দি ছিল। কিন্তু স্বাধীনতা দিবসের মাত্র ৭২ ঘন্টার মধ্যেই হঠাৎ করেই মন্দির থেকে উধাও হয়ে গেল মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মূর্তি। এই ঘটনার জেরে রীতিমতো ভীত ওই মন্দির নির্মাতা। ইতিমধ্যেই এই মন্দিরটি কে সম্পূর্ণরূপে প্লাস্টিক দিয়ে ঘিরে ফেলেছেন তিনি।

কিন্তু, মোদির মূর্তি গেল কোথায়, এই বিষয়টি এখনো পর্যন্ত অজানা রয়ে গিয়েছে। মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা এই ঘটনায় এখনও বিমর্ষ অবস্থায় রয়েছেন বলে খবর। পাশাপাশি, তিনি তার সমস্ত ফোন নম্বর বন্ধ করে বসে রয়েছেন। বিজেপি নেতৃত্বের তরফ থেকে এই ঘটনায় তদন্তের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত, না প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির আবক্ষ মূর্তি, না ওই চোরের নাম ঠিকানা কিছুই পাওয়া যায়নি।

স্বাধীনতা দিবসের দিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উৎসর্গ করে একটি মন্দির উদ্বোধন করেন মহারাষ্ট্রের পুনের একজন সক্রিয় বিজেপি নেতা ময়ূর মূন্দে। এই মন্দিরে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির একটি আবক্ষ মূর্তি বসানো হয়েছিল। স্থানীয় একজন বর্ষীয়ান এবং অত্যন্ত অভিজ্ঞ মানুষ এই মন্দিরের দ্বারোদ্ঘাটন করেছিলেন বলে খবর। জানা যাচ্ছে, তিনি অত্যন্ত ধর্মপ্রাণ একজন হিন্দু। তাই, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তৎপরতায় যেভাবে অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের কাজে এগোচ্ছে, তাতে অত্যন্ত অনুপ্রাণিত হয়ে মন্দির তিনি বানিয়েছেন বলেই খবর। মন্দিরটি দৈর্ঘ্য প্রস্থ উচ্চতার দিক থেকে ৬ ফুট × ২.৫ ফুট × ৭.৫ ফুট।

Related Articles

Back to top button