ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

কেন্দ্রের সুপার ধামাকা প্রকল্প, বছরে ৩৪২ টাকা দিলেই পাবেন ৪ লক্ষ টাকার সুবিধা

কেন্দ্রীয় সরকার নিত্যনতুন যোজনা নিয়ে আসছে তার নাগরিকদের সুবিধার্থে। সবধরনের নাগরিকদের কথা মাথায় রেখেই নিয়ে আসা হচ্ছে যোজনা। সরকারি যোজনায় বিনিয়োগ করে লাভবান হন সাধারণ মানুষ। কেন্দ্রীয় সরকারের দ্বারা প্রচলিত এমন কিছু প্রকল্প রয়েছে যার সুবিধা খুব সহজেই পেয়ে যেতে পারেন গ্রাহকরা। এখনো বহু মানুষ রয়েছেন যাদের কোনো ধারণাই সরকারি প্রকল্পগুলো সম্বন্ধে। কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা প্রচলিত এমন একটি প্রকল্প রয়েছে যেখানে ২৮ টাকা প্রতি মাসে খরচ করলেই ৪ লাখ টাকার সুবিধা পেয়ে যাবেন গ্রাহকরা। অর্থাৎ বছরে ৩৪২ টাকা বিনিয়োগ করতে পারলেই ৪ লক্ষ্য টাকা পাওয়া যাবে।

কেন্দ্রের প্রচলিত করা অসংখ্য প্রকল্পের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ দুটি সুপার প্রকল্প রয়েছে। যাতে বিনিয়োগের পরিমাণ খুবই কম। একটি প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি যোজনা, অন্যটি প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বিমা যোজনা৷

• প্রধানমন্ত্রী জীবন সুরক্ষা বিমা যোজনায়: বার্ষিক ৩৩০ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। এই টাকা বিনিয়োগ করলে তবেই এই যোজনার গ্রাহকরা ২ লাখ টাকার সুবিধা পেয়ে যাবেন। যিনি এই যোজনার গ্রাহক হবেন তার যদি কোন কারণে মৃত্যু ঘটে তাহলে তার সাথে নমিনি হিসেবে যিনি থাকবেন তিনি এই বড় অঙ্কের টাকা গ্রাহকের মৃত্যুর পর পেয়ে যাবেন।

• প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বিমা যোজনা: এই যোজনার গ্রাহকদের বছরে ১২ টাকা প্রিমিয়াম দিতে হয়। তবেই গ্রাহকরা একটা সময়ের পড়ে গিয়ে ২ লাখ টাকার সুবিধা পেয়ে যাবেন। তবে কোনো কারণে এই যোজনার গ্রাহকের মৃত্যু ঘটলে সেই টাকা তার পরিবারের সদস্যরা পাবেন কিনা তা জানা নেই। তবে তার সাথে নমিনি হিসেবে যদি কেউ থাকেন, তাহলে সে এই বড় অঙ্কের টাকা পেয়ে গেলেও পেয়ে যেতে পারেন।

এই দুটি ছাড়াও কেন্দ্রীয় সরকারের আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ যোজনা রয়েছে যার মাধ্যমে গ্রাহকরা মাসে ১-৫ হাজার পর্যন্ত পেনশন পেয়ে যেতে পারেন ৬০ বছরের পর থেকে। এই যোজনার নাম, অটল পেনশন যোজনা। ১৮-৪০ বছর বয়সের মধ্যেকার যেকোন ব্যক্তি এই প্রকল্পের গ্রাহক হতে পারেন। তবে সে ক্ষেত্রে বয়স অনুযায়ী প্রিমিয়ামের পরিমাণ ভিন্ন হবে।

এমন ধরনের আরও একাধিক যোজনা রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের। সাধারণ মানুষ যদি নিজেদের পরিবারের ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে চান তাহলে এই সমস্ত যোজনার সুবিধা নিতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে সবদিক ভেবে চিন্তে ভালোভাবে দেখে নিয়ে তবেই বিনিয়োগ করতে হবে গ্রাহকদের, তা করতে পারলেই নির্দিষ্ট সময় শেষে গ্রাহকরা হাতে পেয়ে যাবেন বড় অঙ্কের টাকা।

Related Articles

Back to top button