আন্তর্জাতিকনিউজ

BRICS বৈঠকে মুখোমুখি হতে চলেছে নরেন্দ্র মোদি এবং শি জিনপিং

Advertisement

আগামী ১৭ নভেম্বর BRICS শীর্ষ বৈঠক সেখানেই মুখোমুখি হতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও চিনা রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং। যদিও করেনা সংক্রণের কথা মাথায় রেখে ভার্চুয়ালি বৈঠক হবে বলে জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে BRICS এর এবার বৈঠকে আলোচনার বিষয় হল সংগঠনের মধ্যে থাকা দেশগুলির মধ্যে বন্ধুত্ব, আন্তর্জাতিক সুস্থিতি, নিরাপত্তা ও উন্নয়ণ।

আশা করা হচ্ছে এই আলোচনায় ভারত-চিন সীমান্ত উত্তেজনার কথা উঠতেও পারে। ২০১৪ সালের পর থেকে দুই নেতার সাক্ষাত হয়েছে মোট ১৮ বার। প্রসঙ্গত, চিন আর ভারতের সম্পর্ক এখন আদায় কাঁচকলায়। যা পরিস্থিতি সব মিলিয়ে দুই দেশের মধ্যে বিবাদ লেগেই আছে। সীমান্তে পরিকাঠামো উন্নয়নের কাজ করছে ভারত। কিন্তু এবার এই টানেল নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। প্রসঙ্গত, গতকালই অটল টানেল উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে চিন। এই অটল টানেল দীর্ঘ ৯.২ কিলোমিটার লম্বা, যা মানালি থেকে লেহ লাদাখ পর্যন্ত যাতায়াতের পথ আরও সুগম করে তুলবে।

এমনকি মানালি থেকে লাদাখ যেতে এতদিন যা সময় লাগতো, তার থেকে এই টানেলের মাধ্যমে যাতায়াত করলে সময় অনেকটাই কম লাগবে। এর মাঝেই চিন তাদের সরকারি মুখপত্র গ্লোবাল টাইমসে জানায়, ভারতের সঙ্গে যুদ্ধের সময় তারা অটল টানেল উড়িয়ে দেবে। এছাড়াও জানানো হয়েছে এই টানেল ধ্বংস করার একাধিক রাস্তা খোলা রয়েছে চিনা সেনার সামনে। ইতিমধ্যে চিন সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় মোট ৭৩টি রাস্তায় কাজ হবে।

এবার শীতের সময়ও সেই সব রাস্তা নির্মানের কজ বন্ধ রাখবে না ভারত। সব মিলিয়ে আবারও চিন আর ভারতের সম্পর্ক এক ধাপ খারাপের দিকে এগালো। কিন্তু কেনই বা চিনের এতে ক্ষোভ জন্মালো তা এখনো বুঝে উঠতে পারছেন না। কারন এর আগেও এরকম অনেক কারণেই চিনকে ভারতের একাধিক বিষয় নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছে।

 

Tags

Related Articles

Back to top button