নিউজপলিটিক্সরাজ্য

সিঙ্গুর থেকে টাটার কারখানা সরানো ভুল ছিল, দল পাল্টে মমতাকে আক্রমণ মুকুলের

এককালীন সিঙ্গুর আন্দোলনের প্রথম সারির সৈনিক থেকে এবারে সিঙ্গুর আন্দোলনের বিরোধী। বিজেপি নেতা মুকুল রায় এবারে দেখালেন একেবারে সরাসরি ভোলবদল। একসময় তিনি সিঙ্গুর আন্দোলনের অন্যতম প্রধান সৈনিক ছিলেন। কিন্তু এবারে বিজেপি নেতা মুকুল প্রায় একেবারে অন্য মত পোষণ করলেন। রবিবার সাংবাদিক বৈঠকে তিনি একটি লিখিত বয়ান নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে এসেছিলেন। এদিন প্রথম থেকেই মুকুল রায়ের গলায় ছিল তৃণমূলের বিরোধিতার সুর।

সেই বয়ান শুরু করতেই তিনি সিঙ্গুর নিয়ে নিজের অবস্থান আবারো স্পষ্ট করে দিলেন। তিনি বললেন,”সিঙ্গুর থেকে টাটাদের তাড়ানো ভুল হয়েছিল। তখনো বলেছিলাম, আর এখনও বলছি। টাটাদের তাড়ানোর পর থেকে আর রাজ্যে শিল্প আসছে না।” এই মন্তব্যের পর নতুন করে জল্পনা উস্কে দিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। সিঙ্গুর প্রসঙ্গ নতুন করে উত্থাপন করার পাশাপাশি তিনি এবারে তৃণমূলকে এক হাত নিয়ে মন্তব্য করলেন, সিঙ্গুর থেকে টাটাকে তাড়ানো ছিল ভুল।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে যখন সিঙ্গুর আন্দোলন হয়েছিল তখন কিন্তু তৃণমূলের সামনের সারির নেতা ছিলেন মুকুল রায়। তাহলে এখন তার বলে উল্টো সুর কেন? এই প্রশ্নের উত্তরে মুকুল বলেছেন, তিনি তখনও বিরোধিতা করেছিলেন। এখন স্পষ্ট ভাবে বিরোধিতা করছেন। এছাড়া এইদিন মমতার বিরুদ্ধে রাজ্যের শিল্পের পরিস্থিতি নিয়ে তোপ দাগলেন মুকুল। তিনি বলেছেন, রাজ্যে শেষ ১০ বছরে কোন শিল্প আসেনি। রাজ্যের যুবকদের কোন চাকরি হয়নি। পাশাপাশি সিন্ডিকেটের কারণে একের পর এক শিল্প রাজ্য হারিয়ে বসেছে। বহু মানুষ কাজ হারিয়েছেন। বিশ্ববাংলা বাণিজ্য সম্মেলন হয়েছে বছরের পর বছর। কিন্তু কোন কোম্পানি রাজ্যে বিনিয়োগ করতে ইচ্ছুক হয়নি।

অন্যদিকে বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ এদিন সিঙ্গুর আন্দোলন নিয়ে মুখ খুললেন। তিনি বললেন, “একদিকে সিঙ্গুর থেকে টাটার কারখানা চলে গিয়েছে। অন্যদিকে সিঙ্গুরের মানুষরা কাজ পায়নি। তারা এখনও বেকার রয়ে গিয়েছে।”

Related Articles

Back to top button