টলিউডবাংলা সিরিয়ালবিনোদন

দুই সখী যখন শাশুড়ি আর বৌমা হয়! নতুন ভাবনা নিয়ে আসছে ‘আয় তবে সহচরী’



স্বপ্ন, ইচ্ছে আর বন্ধুত্ব এই তিন জিনিসের বয়সের কোনও সীমা হয়না। বন্ধুত্বের কি সত্যি কি কোনো মাপ আছে। না এই বন্ধুত্ব হল সীমাহীন। বন্ধুত্ব কি শুধু সমবয়সীর মধ্যে হয়? না দু’জন অসম বয়সী মানুষের মধ্যেও গড়ে উঠতে পারে গাঢ় বন্ধুত্ব। হ্যাঁ এবার এরকমই এক অটুট বন্ধুত্বের গল্প নিয়ে স্টার জলসায় শুরু হচ্ছে নতুন ধারাবাহিক ‘আয় তবে সহচরী’।

শ্বাশুড়ি বৌমার মধ্যে ভালো বন্ধুত্ব সম্ভব কিন্তু দুই বান্ধবী যখন একে অপরের শ্বাশুড়ি আর বৌমা হয়ে ওঠে? তখন সেই বন্ধুত্বের রসায়ন কেমন হবে? এই গল্প সহচরী আর বরফির। সহচরী স্বপ্ন দেখে সে গোল্ড মেডেলিস্ট হবে। কিন্তু পরিস্থিতির জটিলতায় তা সম্ভব হয়নি। সংসারের জাঁতাকলে তা সম্ভব হয়নি। ঘটনাচক্রে জীবন যখন তাঁকে আরো এক নতুন করে এই সুযোগ দেয় তখন নিজের স্বপ্নপূরণের উদ্দেশ্যে সংসারের গন্ডিতে থেকেও কলেজে প্রবেশ করেন সহচরী। আর কলেজে গিয়েই সহচরী খুঁজে পায় তার সখী বরফিকে।

দুজনের বয়সের পার্থক্য রয়েছে কিন্তু বন্ধুত্ব অটুট। কলেজে যখন সহচরীকে বয়স নিয়ে ইয়ার্কি করে তখন সহচরীর পাশে থাকে বরফি। এবার দ্বিতীয় প্রমো বার হয়েছে আর তাতেই দেখা গিয়েছে, একটু অন্যরকম ‘আয় তবে সহচরী’র গল্পটি। সেখানে দেখা যাচ্ছে সহচরীর ছেলেকে বলছে মাকে বলো দাসী নয় মায়ের জন্য বন্ধু আনতে যাচ্ছো। তখন সহচরী বলছেন, বধূবরণ নয় এবার বন্ধুবরণ। আর কিছুক্ষণ পর বৌমা হয়ে সহচরীর কাছে আসছে বরফি।

এই ধারাবাহিক যে ভিন্ন ধারার হতে চলেছে তা প্রমো বলে দিচ্ছে। বধূবরণ না বন্ধুত্ব এটাই ধারাবাহিকের মূল ইউএসপি হতে চলেছে। প্রমো দেখে সকলে বুঝতে পেরেছেন শাশুড়ি বৌমার মধ্যেও যে অসমবয়সী বন্ধুত্ব হতে পারে তা দেখাবে এই ধারাবাহিক। তবে শুধু ধারাবাহিক নয় চোখ রাখলস বাস্তবে এমন অনেক সহচরী আমাদের চারপাশে আছেন। যাঁরা প্রতিনিয়ত অপমানিত এবং অবহেলিত হন। এবার সেই মানুষের তাঁদের স্বপ্নপূরণের, ইচ্ছে পূরণের গল্প বলবে ‘আয় তবে সহচরী’। ইতিমধ্যে ধারাবাহিকের প্রমো বেশ পছন্দ হয়েছে। একঘেয়ে কূটকাচালি, শত্রুতা, হানাহানির বদলে শাশুড়ি বৌমার মিষ্টি সম্পর্কের রসায়নে স্বাদ বদলের জন্য মুখিয়ে রয়েছেন দর্শকেরা।

এই ছকভাঙা ধারাবাহিকের গল্পকার হলেন সাহানা দত্ত। এই ধারাবাহিকের মাধ্যমেই বেশ কয়েক বছর পর  আবার ছোটপর্দায় কামব্যাক করছেন অভিনেত্রী কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ধারাবাহিকে কনীনিকা ছাড়া প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন অরুণিমা হালদার। এছাড়াও রয়েছেন ইন্দ্রজিৎ চক্রবর্তী, ইন্দ্রনীল চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ। ধারাবাহিকের সহচরীর স্বামীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন ইন্দ্রজিৎ। ইন্দ্রনীলকে দেখা যাবে সহচরীর ছেলে রৌদ্রর চরিত্রে। উল্লেখ্য, ‘আয় তবে সহচরী’ ধারাবাহিকে প্রথমবার প্রযোজনায় ডেবিউ করছেন সাহানা দত্ত এবং রোহিত সামন্তর। রোহিতকে এতদিন অভিনেতা হিসেবে দেখেছে দর্শক। শেষবার রোহিতকে শ্রীময়ীর বড় ছেলে অনিরুদ্ধর ভূমিকায়।‘আয় তবে সহচরী’ সম্প্রচারিত হবে আগামী ১৩ই সেপ্টেম্বর থেকে সোম থেকে রবি রাত ন’টায়।

Related Articles

Back to top button