নিউজপলিটিক্সরাজ্য

নেই পুলিশের অনুমতি, বেহালায় শেষ মুহূর্তে বাতিল মিঠুনের রোড শো

বেহালা পূর্ব এবং পশ্চিমে রোড শো করার কথা ছিল মিঠুন চক্রবর্তীর। কিন্তু পরে সিডিউল পাল্টে বাবুলের সমর্থনে রোড শো করতে যান তিনি।

×
Advertisement

টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়র সমর্থনে ভোট প্রচার করতে যাচ্ছিলেন বিজেপি নেতা মিঠুন চক্রবর্তী। কিন্তু অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের কারসাজিতে বৃহস্পতিবার বেহালায় রোড শো এর অনুমতি দেওয়া হয়নি। এই নিয়ে শাসক-বিরোধী তরজা তুঙ্গে। তবে বেহালায় না হলেও রোড শো হয় টালিগঞ্জে। সেখানকার প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় সমর্থনে রোড শোতে অংশগ্রহণ করেছিলেন বিজেপি নেতা মিঠুন চক্রবর্তী।

Advertisement

বাবুলের বিরুদ্ধে প্রার্থী তৃণমূলের অরূপ বিশ্বাস। অরূপ বিশ্বাস এর বিরোধিতা করতে করতে টালিগঞ্জ স্টুডিও পাড়া উপর দিয়ে মিঠুনের রোড শো চলে যায়। বাবুল সুপ্রিয় অভিযোগ করেন, “টালিগঞ্জের কলাকুশলীদের উপর তৃণমূল নেতা অরূপ বিশ্বাস যে রকম অত্যাচার চালাচ্ছেন বিজেপি ক্ষমতায় এলে তার সমস্ত বিচার করবে।”

অন্যদিকে তৃণমূল জানিয়েছে, ‘মিঠুনের রোড শো এর অনুমতি না পাওয়ার সঙ্গে তৃণমূলের কোন সম্পর্ক নেই। নির্বাচনী আচরণবিধি লাগু থাকলে রাজনৈতিক কর্মসূচির আবেদন করতে হয় অনলাইনে। বিজেপির লোকজন রাজনীতি করছে নতুন নতুন। তাই তাদের এই সমস্ত বিষয়ে কোনো জানা নেই অহেতুক তৃণমূলকে দোষারোপ করা হচ্ছে।”

Advertisement

জানিয়ে রাখি বেহালা পর্ণশ্রী থেকে এদিন রোড শো করার কথা ছিল মিঠুন চক্রবর্তীর। বেহালা পূর্বে তৃণমূল প্রার্থী রয়েছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। অন্যদিকে আবার বিজেপির প্রার্থী পায়েল সরকার। তার পাশাপাশি বেহালা পশ্চিমে তৃণমূল প্রার্থী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আর তার বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী হয়েছেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। তাই এবারে, বেহালার দুটি আসনে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে লড়াই হতে চলেছে একেবারে হাড্ডাহাড্ডি। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছিল রোড শো এর অনুমতি নেই কোনো রকম। সেই ঘোষণা করে রাগে ফেটে পড়েন বিজেপি কর্মীরা। তারপর তারা পর্ণশ্রী থানার সামনে বসে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে।

Related Articles

Back to top button