×
টলিউডবিনোদন

Mithai: ‘মিঠাই’ ধারাবাহিক বয়কটের ডাক খোদ দর্শকদের

Advertisement

জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মিঠাই’। টেলিভিশন জগতে সমস্ত ধারাবাহিকগুলোর মধ্যে মিঠাই দর্শকদের পছন্দের তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে। ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী কয়েকদিন আগে মন্ত্রী মশাইয়ের কাছ থেকে মিষ্টি হাব উদ্বোধনের দিন পুরস্কার পেয়েছেন সিদ্ধেশ্বর মোদক অর্থাৎ সকলের প্রিয় দাদাই। আর এই সিদ্ধেশ্বর মোদককে ব্যবসায়ী সমিতির তরফ থেকে সম্মান জানানোর জন্য নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। আর সেখানেই এক দৃশ্যে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত ব্যবহার করা হয়েছে। আর এরপরেই ধারাবাহিক বয়কটের ডাক দিয়েছেন একদল দর্শক।

Advertisement

মিঠাই ধারাবাহিকের দর্শকদের মধ্যেই বেশ কয়েকজন এমন ডাক দিয়েছেন। তবে বাংলাদেশ থেকে নয় এই ডাক উঠেছে কলকাতার দর্শকদের মধ্যে থেকেই। ওয়েস্টবেঙ্গল টেলিভিশন ওয়াচার্স অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে দাবি তোলা হয়েছে, ধারাবাহিকে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত ব্যবহার করা হয়েছে, কিন্তু যখন গানটি হচ্ছিল তখন কেউ উঠে দাঁড়াননি অর্থাৎ গানের অবমাননা করা হয়েছে। আর এর জন্য টেলিভিশনের পর্দায় মিঠাই ধারাবাহিক চলাকালীন প্রযোজকদের ক্ষমা চাইতে হবে বলেই দাবি তুলেছেন তারা। আর তা না হলে বয়কট করা হবে ধারাবাহিক, অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে।

তারা এও জানিয়েছেন, যদি প্রযোজকরা ক্ষমা না চান তাহলে তারা বৃহত্তর আন্দোলনের দিকে আগ্রহী হবেন। কেবল অপারেটররা যাতে মিঠাই ধারাবাহিক না দেখান তার ব্যবস্থা করবেন তারা। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ধারাবাহিকের প্রয়োজনে তরফ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তারা ‘আমার সোনার বাংলা’ গানটিকে শুধুমাত্র একটি রবীন্দ্র সঙ্গীত হিসেবে দেখেছেন। কিন্তু ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের জন্ম হওয়ার পর এই গানটিকে জাতীয় সঙ্গীত হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন তারা। ধারাবাহিকের পর্দায় এই গানের ব্যবহারকে অবমাননা হিসেবে দেখেছেন অ্যাসোসিয়েশনের লোকজন। যদি প্রযোজকরা ক্ষমা না চায় তাহলে তারা নিজেদের মতো ব্যবস্থা নেবেন বলেই জানিয়েছেন।

Advertisement

Related Articles

Back to top button