×
টলিউডবিনোদন

চোখ ধাঁধানো লুক, চাবুক ফিগারে ঝড় তুললেন মিমি চক্রবর্তী, ভাইরাল ছবি

Advertisement

অভিনেত্রী-সাংসদ মিমি চক্রবর্তী (Mimi Chakraborty) এই মুহূর্তে রাজস্থানে ছুটি কাটাচ্ছেন।  তাঁর সঙ্গে রয়েছেন তাঁর বান্ধবী অভিনেত্রী নুসরত জাহান (Nusrat jahan) এবং নুসরতের বর্তমান প্রেমিক অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত (yash dasgupta)।  রাজস্থান থেকে তাঁরা শেয়ার করছেন একাধিক ছবি। সম্প্রতি মিমি নিজের একটি সুন্দর ছবি শেয়ার করেছেন ইন্সটাগ্রামে। ছবিতে মিমির পরনে রয়েছে রেড ট্রাউজার্স ও ব্রাউন ক্রপ টপ এবং চোখে সানগ্লাস। ছবিতে মিমির ব্যাকগ্রাউন্ডে রাজস্থানের একটি ঐতিহ্যশালী প‍্যালেস হোটেলের সি-গ্রীন জলভরা সুইমিং পুল ও কিছু স্থাপত্য দেখা যাচ্ছে যা ছবিটির সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলেছে।  নেটিজেনদের অনেকেই কমেন্ট করে জানিয়েছেন, মিমিকে এই ছবিতে সুন্দর লাগছে।  অভিনেতা গৌরব চট্টোপাধ্যায় (Gaurav chatterjee) মিমির ছবির নিচে কমেন্ট করে লিখেছেন, তিনি ভেবেছিলেন, ছবিটি হয়তো সেলিব্রিটি সিস্টার্স ‘হাদিদ সিস্টার্স’(Hadid sisters)-এর কেউ একজন।  এই  কমেন্ট দেখে অনায়াসেই বোঝা যাচ্ছে গৌরবের চোখের ক্ষমতা কমে আসছে। ওনার একবার চেক-আপ করানো উচিত।  মিমি নিজেও গৌরবের মন্তব্যকে ‘বাড়াবাড়ি’ বলেই উল্লেখ করেছেন।

Advertisement

কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছে মিমি চক্রবর্তী ও অনির্বাণ ভট্টাচার্য (Anirban bhattacharya)অভিনীত ফিল্ম ‘ড্রাকুলা স‍্যার’। এই ফিল্মে মিমির অভিনয় যথেষ্ট প্রশংসিত হয়েছে। দেবালয় ভট্টাচার্য(Debalay Bhattacharya) পরিচালিত এই ফিল্ম করোনা আবহেও বক্স অফিসে বেশ ভালোই ব্যবসা করেছে। এমনকি এই ফিল্মটি হিন্দিতে ‘ডাব’ করার কথাও চলছে। এছাড়া সম্প্রতি মিমি ও জিৎ (Jeet) অভিনীত ফিল্ম ‘বাজি’র ট্রেলার লঞ্চ হয়েছে ইউটিউবে। ট্রেলারটি লঞ্চ হতেই মুহূর্তে তা ভাইরাল হয়ে যায়। ‘বাজি’ ছবির এর অধিকাংশ অংশের শুটিং হয়েছে লন্ডনে।

অভিনেত্রী হিসেবে ব্যস্ত থাকলেও সাংসদ হিসেবেও যথেষ্ট কাজ করেন মিমি। প্রায়ই নিজের পাটুলির অফিসে বসে সাধারণ মানুষের সমস্যার কথা শোনেন এবং তা সমাধান করার ব্যবস্থা করেন তিনি। করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনের সময় মিমি নিজের উদ্যোগে ত্রাণ বন্টন করেছিলেন। তবে তাঁর কেন্দ্র দক্ষিণ কলকাতার যাদবপুরের বাসিন্দাদের একাংশ অভিযোগ করেছেন, মিমি যাদবপুরের উন্নয়নের জন্য কোন কাজ করছেন না। কিন্তু মিমি জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে যাদবপুরের কিছু এলাকার যা পরিস্থিতি তাতে সেই এলাকাগুলির উন্নয়নে কিছু সময় লাগবে।

Advertisement

Related Articles

Back to top button