নিউজরাজ্য

সুখবর যাত্রীদের জন্য, এবারে স্টেশনের তালিকায় যুক্ত হচ্ছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার এই প্রান্তিক জায়গাটি

সম্প্রতি ভারতীয় রেলের স্টেশন লিস্টে সংযুক্ত হয়েছে এই জায়গাটি

×
Advertisement

ভারতের ৭৬ তম স্বাধীনতা দিবস কার্যত স্মরণীয় হয়ে রইল ক্যানিংবাসীর জন্য। স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তিতে নতুন স্টেশন পেল ক্যানিং এর বাসিন্দারা। ১৫ আগস্ট এর দিন উদ্বোধন হলো ক্যানিংয়ের নতুন স্টেশন, নাম মাতলা হল্ট। স্থানীয় মানুষজন যে স্টেশনকে এতদিন চাঁদখালি হল্ট নামে পরিচিতি দিয়েছিলেন, সেই স্টেশনের নাম এবারে হল মাতলা হল্ট। নতুন নামে পথ চলা শুরু করল আজ এই স্টেশনটি। মাতলা হল ক্যানিং আর তালদির মধ্যবর্তী স্টেশন। ইতিমধ্যেই রেলের তরফে একটি সরকারি নির্দেশিকার মাধ্যমে এই স্টেশনের নামকরণের ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে।

Advertisement

ক্যানিং এর ঐতিহ্যবাহী এবং সুন্দরবনের সবথেকে ভয়ংকর নদী ছিল মাতলা নদী। একটা সময় এই মাতলা নদীর রূপ এতটাই ভয়ঙ্কর ছিল যে তার জন্য এই নদী স্থান পেয়েছে ইতিহাসের পাতায়। ব্রিটিশ আমলে এই মাতলা নদীকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছিল বাণিজ্য নগরী ক্যানিং। এই শহরে এসেছিল রাইস মিল, বন্দর এবং সবকিছুই। মাতলা নদীকে কেন্দ্র করেই সবকিছু তৈরি হয়েছিল দক্ষিণ ২৪ পরগনার এই প্রান্তিক জেলায়। তবে কালের নিয়মে অবশ্য হারিয়ে গিয়েছে এই মাতলা নদীর গভীরতা। এই নদীটি এই মুহূর্তে একটি মৃতপ্রায় জলধারা যা প্রতি মুহূর্তে ইতিহাসকে সাক্ষী রেখে চলেছে। সেই ঐতিহাসিক মাতলা নদীকে বা রেলস্টেশনের পাঠাতে স্থান দিতে চলেছে ভারতীয় রেলওয়ে।

আপনাদের জানিয়ে রাখি ভারতীয় রেলওয়ের শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার অন্তিম স্টেশন হচ্ছে ক্যানিং। এই স্টেশনের পর আর কোন ট্রেন যেতে পারে না। এই ক্যানিং স্টেশনের আগের স্টেশনটির নাম তালদি। এই দুটি স্টেশনের মধ্যবর্তী নতুন স্টেশনের নামকরণ করা হয়েছে মাতলা নদীর নামে। ক্যানিং স্টেশন থেকে প্রায় চার কিলোমিটার দূরত্বে আর তালদি থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত হতে চলেছে এই মাতলা হল্ট।

Advertisement

Related Articles

Back to top button