Today Trending Newsকলকাতানিউজপলিটিক্সরাজ্য

‘মমতাকে আমি হারাবই, নন্দীগ্রামে পদ্ম ফোটাবই’, পিংলার জনসভা থেকে হুঁশিয়ারি শুভেন্দুর

নীল বাড়ির লড়াইয়ে আবারও নতুন করে রাজনৈতিক হুঙ্কারের তড়কা লাগালেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikary)। তিনি হুঁশিয়ারি দিলেন, এবারে তিনি নন্দীগ্রাম থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি একেবারে হারিয়ে ছাড়বেন। কিন্তু, এখনো পর্যন্ত এটা পরিষ্কার হয়নি যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিরুদ্ধে তিনি ভোটে নামছেন নাকি না। ইতিমধ্যেই যখন শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন, তখন থেকেই তিনি হুংকার দিয়ে এসেছিলেন তিনি নন্দীগ্রামে পদ্ম ফোটাবেন। সেই প্রতিশ্রুতি তাকে যে রাখতেই হবে! এইজন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এর বিরুদ্ধে তিনি কোমর বেঁধে নামতে চলেছে।

তবে এখনো পর্যন্ত খুলসা করে তিনি জানাননি তিনি নামছেন নাকি তার কোন বোড়ে তার কথা মতো কাজ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করতে নামছেন। গত ১৮ জানুয়ারি তারিখে তেখালি জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণা করেছিলেন নন্দীগ্রাম থেকে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চলেছেন আগামী বিধানসভা নির্বাচনে। তিনি সরাসরি হুংকার দিয়েছিলেন, বিজেপিকে তিনি কোনোভাবেই নন্দীগ্রামে আসতে দেবেন না। তার পাশাপাশি কর্মীদের কাছে তারবার্তা আগামী নির্বাচনে তিনি নন্দীগ্রাম থেকেই লড়াই করতে চলেছেন এবং ইতিমধ্যেই এই লড়াইয়ের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। জানা যাচ্ছে শিবরাত্রির দিন তিনি নন্দীগ্রাম আসনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিতে চলেছেন।

অন্যদিকে নন্দীগ্রামে প্রার্থী হচ্ছেন শুনে শুভেন্দু অধিকারী সরাসরি হুমকি দিয়েছিলেন তিনি তাকে হাফ লাখ অর্থাৎ ৫০,০০০ ভোটে পরাজিত করবেন। নয়তো রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার হুঙ্কার দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। বুধবার পিংলার জনসভা থেকে আরো একবার মমতাকে হারানোর প্রতিশ্রুতি দিলেন শুভেন্দু। শুভেন্দু বললেন, ‘আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারাবো। আমি নিশ্চিত হারাবো। যদি আমাকে দল প্রার্থী করে তাহলে সরাসরি হারাবো। যদি না করে তাহলেও হারাবো। আমার দায়িত্ব আমি নন্দীগ্রামে পদ্ম ফোটাবো।”

যদি এখনও পর্যন্ত এই বিষয়টি পরিষ্কার হয়নি, নন্দীগ্রাম আসনে কে বিজেপির হয়ে ভোট যুদ্ধে নামতে চলেছেন। শুভেন্দু অধিকারী নিজে প্রার্থী হবেন নাকি অন্য কাউকে প্রার্থী করা হবে দলের তরফ থেকে সেটা কিন্তু এখনও পর্যন্ত পরিষ্কার নয়। তবে শুভেন্দু অধিকারী যে এবারে বিধানসভা নির্বাচনে নামতে চলেছেন সেই বিষয়টি কিন্তু একেবারে স্পষ্ট। ইতিমধ্যেই তিনি জুট কর্পোরেশন এর অবস্থায় চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন ভোট যুদ্ধে নামার প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য। শুভেন্দু ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন, কেউ যদি ভোটে দাঁড়াতে চায় তাহলে তাকে সরকারি সমস্ত পদ ছেড়ে দিতে হয়। তাই জন্যই শুভেন্দু অধিকারী এই ইস্তফা দিয়েছেন। তবে এবারের বিধানসভা নির্বাচনে আমরা নন্দীগ্রাম আসনে শুভেন্দু অধিকারী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে একটা টক্কর দেখতে চলেছি।

Related Articles

Back to top button