Today Trending Newsনিউজপলিটিক্সরাজ্য

‘আপনার কেন্দ্র বারাণসীতে লড়বেন মমতা’, মোদিকে পাল্টা খোঁচা মহুয়া মিত্রের

গতকাল জয়নগরের সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিদ্রুপ করে বলেছিলেন, "নন্দীগ্রামের পর আপনি কোন দ্বিতীয় আসন থেকে লড়বেন?"

×
Advertisement

একুশে বাংলা বিধানসভার নির্বাচনকালে তৃণমূল বিজেপি দ্বন্দ্ব ক্রমশ চরমে উঠেছে। এরইমধ্যে গতকাল দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে ভোটগ্রহণপর্ব সম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে সবচেয়ে আলোচ্য কেন্দ্র ছিল নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্র। এই বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে গেরুয়া সৈনিক হয়ে দাড়িয়ে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। বিক্ষিপ্ত অশান্তির কথা বাদ দিলে মোটামুটি শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে গতকাল। তবে গতকাল যখন দ্বিতীয় দফায় ৩০ বিধানসভা আসন নির্বাচন চলছে তখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জয়নগরের জনসভায় উপস্থিত হয়েছিলেন। আর সেই জনসভা থেকেই তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে গলায় সুর তুলেছেন।

Advertisement

নরেন্দ্র মোদী গতকাল কার্যত বিদ্রূপ করে বলেছিলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দ্বিতীয় কোন আসন থেকে লড়বেন?” আসলে নন্দীগ্রামের ভোট ভাগ্যের আভাস দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরাসরি জানিয়ে দিয়েছে নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জিতবেন না। জিতবে ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারী। তিনি মমতাকে খোঁচা দিয়ে বলেছেন, দ্বিতীয় কোন আসনে লড়ছেন তিনি? তবে প্রধানমন্ত্রীর খোঁচার পাল্টা জবাব দিতে ছাড়েনি তৃণমূল কংগ্রেস। তারা স্পষ্ট জানিয়েছে, “মুখ্যমন্ত্রী নন্দীগ্রাম ছাড়া বাংলায় আর কোন বিধানসভা কেন্দ্র থেকে এবারের ভোটে লড়ছে না। নন্দীগ্রামে মমতা জিতবে। প্রধানমন্ত্রী জনসাধারণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।পশ্চিমবঙ্গে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার দিন শেষ হয়ে গেলেই সাধারণ মানুষ বুঝে যাবে প্রধানমন্ত্রী মিথ্যা কথা বলছে।”

অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর কথার পাল্টা জবাব দিয়ে মহুয়া মিত্র টুইট করে বলেছেন, “দ্বিতীয় আসন থেকে লড়াই? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। হ্যাঁ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লড়বেন। আর সেই আসনটি হবে বারাণসী। তাই নিজের বর্ম পরে নিন।” এখানে মহুয়া মিত্র স্পষ্ট করেননি যে ২০২৪ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়বেন না অন্য কোন দলের হেভিওয়েট প্রার্থীদের সমর্থন করবে তৃণমূল কংগ্রেস।

Advertisement

Related Articles

Back to top button