নিউজপলিটিক্সরাজ্য

নাম না করে শুভেন্দুকে “ঘরশত্রু বিভীষণ” আখ্যান মমতার

আজ শনিবার হলদিয়াতে একটি জনসভায় উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

×
Advertisement

একুশে বাংলা বিধানসভা নির্বাচনে দামামা বেজে গেছে বাংলায়। তৃণমূল-বিজেপি দ্বন্দ্বে সরগরম হয়ে আছে গোটা বঙ্গ রাজনীতি। তারই মধ্যে নন্দীগ্রামে একদিকে যেমন তৃণমূল প্রার্থী হয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঠিক অন্যদিকে দাঁড়িয়েছেন নন্দীগ্রামের ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারী। মমতা শুভেন্দু দ্বন্দ্ব অব্যাহত রয়েছে বেশ কিছুদিন ধরে। এরইমধ্যে আজ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হলদিয়াতে গিয়ে একাধারে বিজেপি ও শুভেন্দু অধিকারীর নাম না করে তার বিরুদ্ধে গলায় সুর তুললেন। তিনি সরাসরি নাম না নিয়ে ঘরশত্রু বিভীষণ আখ্যান দিয়েছেন যা শুভেন্দুর জন্য, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

Advertisement

আজ অর্থাৎ শনিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় হলদিয়ার জনসভায় উপস্থিত থেকে বলেছেন, “মেদনিপুরে কিছু গদ্দার, মীরজাফর পুষেছিলাম যার জন্য মিলন মন্ডলকে দু বছর জেলে থাকতে হয়েছে। এছাড়া পাঁশকুড়ায় আনিসুরকে জেলে রাত কাটাতে হয়েছে। এখন তারা বিজেপিতে। আসলে তৃণমূলের কাজে কেউ কথা বললে ওরা তাদেরকে জেলে ভরে দিত।” এছাড়া মুখ্যমন্ত্রী এদিন তোলাবাজ প্রসঙ্গ তুলে বলেছেন, “তৃণমূল এতদিন যাদের স্নেহ দিয়ে বড় করেছে, তার থেকে বড় তোলাবাজ আর কে আছে বলুন? তৃণমূল দলে থেকে জোচ্চুরি করতে বারণ করেছিল বলে আজ তারা বিজেপিতে পালিয়ে গেছে।”

এছাড়াও এদিন নাম না করে বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীকে কটাক্ষ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “ওরা বলছে মেদিনীপুরে আসতে আমাকে পারমিশন নিতে হবে। কেন মেদিনীপুর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল নাকি? এগরা, খেজুরি, নন্দীগ্রাম, হলদিয়াতে আসতে পারমিশন কেন নিতে হবে? ওরা কি জমিদার নাকি? আজ আমি বেঁচে আছি। যখন ইচ্ছা তখন আসতে পারি। নিজের মতো কাজ করতে পারি। ওরা বলার কে?”

Advertisement

Related Articles

Back to top button