টলিউডবিনোদনভাইরাল & ভিডিও

Madhumita: বিক্রমকে বিয়ে করলেও নিজের পদবি বদলাতে নারাজ মধুমিতা! নেপথ্যে ‘কুলের আচার’

×
Advertisement

শেক্সপিয়ার বলে গেছেন, ‘হোয়াটস ইন এ নেম?’ সত্যি নামে কি যায়? তবে বাঙালী পরিচালক সুদীপ দাসের ‘কুলের আচার’ বলবে ‘হোয়াটস ইন এ সারনেম?’ এবার এটাই একটা গোটা ছবির বিষয়বস্তু। নতুন বছর আসার আগেই নিউ ইয়ারের আগেই দর্শকদের জন্য এমনই এক উপহার দিল এসভিএফ। এবার এসভিএফ প্রযোজনা সংস্থার সৌজন্যে সকলে চাখতে পারবেন ‘কুলের আচার’। শীতের সকালে কুলের আচার মন্দ হয়না। এবার এই কুলের আচারে আসতে চলেছে নতুন মজার ফ্যামিলি ড্রামা। আর এই নতুন ছবিতে প্রথমবার জুটি বাঁধতে চলেছেন মধুমিতা সরকার ও বিক্রম চট্টোপাধ্যায়।

Advertisement

তবে শুধু নতুন ছবিতে নামে চমক নেই এই ছবিতে রয়েছে একাধিক চমক। এই ছবির মাধ্যমেই দীর্ঘ পাঁচ বছর পর, বড় পর্দায় ফিরতে চলেছেন টলি অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদার ওরফে সকলের প্রিয় শ্রীময়ী। এই ছবিতে বিক্রমের বাবা-মা’র চরিত্রে থাকছেন ইন্দ্রাণী হালদার ও নীল মুখোপাধ্যায়। এছাড়াও, পরিচালক মৈনাক ভৌমিক রয়েছেন ছবির ক্রিয়েটিভ ডিরেকশনের গুরু দায়িত্বে। ‘প্রসেন এর দল বল’ ছবির সঙ্গীত পরিচালনা করবেন। 

কুলের আচার সিনেমাতে মিঠি আর প্রীতমের প্রেমের গল্প বলবে। প্রীতমের সাথে বিয়ের পর নিজের পদবি কোনোভাবে পালটাতে চায় না মিঠি। আজ ২০২১ দাঁড়িয়েও যতই সকলে উন্নত হোক না কেন ভারতীয় সমাজব্যবস্থায় এই ছোট্ট বিষয় নিয়ে অনেকের ছুৎমার্গ আছে। এই ছোট ব্যপার কতটা জটিল, তা উঠে আসবে ‘কুলের আচার’-এ। মিসেস সেন নাকি মিসেস রায়, কোনটা মিঠির পরিচয় হবে? সমাজব্যবস্থার এই সংবেদনশীল একটা বিষয় ছবিতে উঠে এলেও সেটা থাকবে পুরোটাই কমেডির মোড়কে।

Advertisement

কাহিনির শুরুতেই এই সারনেম নিয়ে গণ্ডোগোলের জেরে হানিমুনে গিয়ে মুশকিলে পড়বে মিঠি আর প্রীতম, কারণ বর আর বউয়ের পদবি আলাদা কী করে হয়? পরিস্থিতি এতটা জটিল হবে যে হানিমুন ফেলে মাঝপথেই বাড়ি ফিরতে হবে মিঠি আর প্রীতমকে। এর পরবর্তীতে মিঠি-প্রীতমের দাম্পত্য জীবনের একটা মজার পাশাপাশি জটিল পথচলার কথা উঠে আসবে এই ছবিতে। প্রীতম একদম খোলা মনের এবং প্রচণ্ড সাপোর্টিভ হাজব্যান্ড। কিন্তু বউমার এই পদবি পরিবর্ত নিয়ে সমস্যা আছে শ্বশুর-শাশুড়ির। এরপর গল্পে কি হয় তাই দেখার।

‘চিনি’র পর ফের একবার মৈনাক ভৌমিকের সাথে বড়পর্দায় মধুমিতা সরকার। উল্লেখ্য, মৈনাক-মধুমিতা জুটির ‘চিনি’র ভাবনা ব্রশ প্রশংসনীয় হয়। ফের এই ছবিতে আবারও মধুমিতাকে দেখা যাবে এক স্বাধীনচেতা নারীর চরিত্রে। শুক্রবার এই ছবির প্রথম পোস্টারও এদিন প্রকাশ্যে এনেছে মধুমিতা। ফার্স্ট লুক পোস্টারে দেখা মিলল একটি কুলের আচারের জারের। কিন্তু মুখবন্ধ সেই কাঁচের জারের ভিতর আচার নয়, বড় বড় হরফে লেখা রয়েছে সেন আর রায়। আসলে ছবিতে এটাই বিক্রম ও মধুমিতার পদবি। ক্যপশানে লেখা রয়েছে, “একটু মিষ্টি… একটু টক… একটু ঝাল… এটাই Mrs Sen এর, sorry sorry, Mrs Roy…. বাদ দিন, এটা আমার পরিবারের গল্প…. ” ইতিমধ্যে অভিনেত্রীর অনুরাগীরা বেশ উচ্ছ্বসিত। নিমেষে ভাইরাল হয় এই পোস্ট।

 

Related Articles

Back to top button