জীবনযাপনস্বাস্থ্য ও ফিটনেস

পেঁপে কি গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ভালো? উত্তর জানতে পড়তে থাকুন

Advertisement

পেঁপেতে প্রচুর পরিমাণ মিনারেল, অ্যানটিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন রয়েছে যা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। এককথায় পাকা পেঁপে হল ভিটামিনের স্টোর। ত্বককে প্রভাবিত করে পাকা পেঁপে। এছাড়াও পাঁকা পেপে খেলে মুখে রুচি বাড়ে এবং অর্শ রোগের ক্ষেত্রেও বেশ উপকারি। আপনি যদি চুলের সমস্যায় ভোগেন তবে টক দইয়ের সাথে পেপে মিশিয়ে চুলে মাখলে চুলের গোরা শক্ত হয় ও চুল ঝলমলে হয়। আপনি যদি প্রতিদিন পাকা পেপের সাথে মধু ও টকদই মিশিয়ে নিয়মিত ত্বকে মাখেন তবে আপনার উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে। কিন্তু আজ আমরা গর্ভবতী মহিলাদের নিয়ে কথা বলব। পেঁপে খাওয়া নিয়ে গর্ভবতী মহিলাদের মধ্যে প্রচুর সংশয় রয়েছে। এই সময়ে মায়েরা যা খান সন্তান সেইভাবে পুষ্টি লাভ করে। তবে অনেক মিথ আছে যেখানে বলা আছে যে গর্ভাবস্থায় অনেক জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে পেঁপে। একজন মহিলা তার গর্ভাবস্থায় যা খায় সেটি শিশুকে প্রভাবিত করে। এ কারণেই জানা দরকার যে হবু মায়ের জন্য পেঁপে নিরাপদ নাকি নিরাপদ নয়।

  • গর্ভাবস্থার শুরুর পর্যায় গর্ভাবস্থার প্রথম মাস থেকে তিন মাস পর্যন্ত ভ্রূণটি সূক্ষ্ম থাকে। এই সময় কাঁচা পেঁপে না খাওয়াই ভাল, কারণ কাঁচা পেঁপেতে ল্যাটেক্সযুক্ত পদার্থ রয়েছে, যা গর্ভাশয়ের (গর্ভ) সংকোচনের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। গর্ভাবস্থায় পেটে অস্বাভাবিক গর্ভাশয় সংকোচন কিন্তু গর্ভপাত বা একটি শিশুর অকাল জন্মের কারণ হতে পারে। তাই কাঁচা পেঁপে না খাওয়াই ভাল।
  • একাধিক রিপোর্টে দেখা গেছে যে কাঁচা পেঁপে খেলে প্লাসেন্টার প্রান্ত থেকে রক্তপাত বা রক্তের মাধ্যমে গর্ভপাতের কারণগুলি শক্ত হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু পাকা পেঁপে কাঁচা পেপের থেকে তুলনামূলক অনেক ভাল, স্বাস্থ্যকর ও উপকারী। পেঁপেতে থাকে ফলিক অ্যাসিড যা শিশুর বিকাশের জন্য গর্ভাবস্থায় অপরিহার্য। এছাড়াও পাকা পেঁপে বুকের দুধ উত্‍পাদন বাড়ায়।
  • গর্ভাবস্থায় অনেকসময় কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা যায়। তাই এইসময় পাকা পেঁপে একটু আধটু খাওয়া যেতেই পারে। এর মধ্যে থাকা ফাইবার খাওয়ার হজম হতে সাহায্য করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা কমায়। এমনকি এটি কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।
Tags

Related Articles

Back to top button