ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

পয়লা আগস্ট থেকে ব্যাংক চার্জ বৃদ্ধি করছে এই ব্যাঙ্ক, গুনতে হবে বেশি টাকা

ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক তাদের ডোর স্টেপ ব্যাঙ্কিং পরিষেবা ক্ষেত্রে নতুন ব্যাংক চার্জ ধার্য করেছে



যদি ইন্ডিয়া পেমেন্ট ব্যাংকে আপনার অ্যাকাউন্ট থাকে এবং আপনি ডোর স্টেপ পরিষেবা নিতে চান তাহলে আপনার জন্য রয়েছে একটি খারাপ খবর। আগামী পহেলা আগস্ট থেকে এই পরিষেবা নেওয়ার জন্য আপনাকে অতিরিক্ত টাকা গুনতে হতে পারে। একটি বিবৃতিতে ইন্ডিয়া পোস্ট জানিয়ে দিয়েছে ব্যাঙ্কিং পরিষেবা ক্ষেত্রে এবার থেকে কুড়ি টাকা অতিরিক্ত চার্জ নেবে ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক। তার সাথেই জিএসটি থাকবে। এই মুহূর্তে আপনাদের কোন অতিরিক্ত চার্জ গুনতে হয় না শুধুমাত্র জিএসটি দিলেই হয়। কিন্তু এবারে এই ব্যাঙ্কিং পরিষেবা কিছু বিশেষ পরিবর্তন আনতে চলেছে ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক।

তার পাশাপাশি আরো বেশ কিছু রীতিনীতি পরিবর্তন করেছে ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক। তারা সেভিংস অ্যাকাউন্টে সুদের হার অনেকটা কমিয়ে দিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। নতুন নীতি অনুসারে যারা বর্তমানে সেভিংস একাউন্ট খুলেছেন তাদের ক্ষেত্রে সুদের হার অনেকটা কমে গেছে। গত পয়লা জুলাই থেকে এই সেভিংস একাউন্ট এর নতুন সুদের হার কার্যকর হয়েছিল। বর্তমানে যারা ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলেছেন তাদের সেভিংস একাউন্টে বার্ষিক ২.৫ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া হচ্ছে। এই সুদের হার আগে ছিল ২.৭৫। তবে যদি দু লাখ টাকার উপরে আপনার একাউন্টে থাকে, তাহলে আপনি সুদ বেশি পাবেন।

কিন্তু ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্ট ব্যাঙ্ক এর সবথেকে আকর্ষনীয় পরিষেবা হলো তাদের ডোর স্টেপ ব্যাঙ্কিং পরিষেবা। এই ব্যাঙ্কিং পরিষেবা মাধ্যমে আপনাকে নিজে ব্যাংকে গিয়ে কোন কাজ করতে হয় না। বরং আপনি বাড়ি থেকেই বিভিন্ন ব্যাঙ্কিং পরিষেবা ব্যবহার করতে পারেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো একাউন্ট খোলা, টাকা জমা দেওয়া, টাকা ট্রান্সফার করা, নগদ টাকা তোলা, রিচার্জ করা এবং বিলের টাকা জমা দেওয়া। এছাড়াও একাউন্টের সাথে প্যান কার্ড এবং নমিনি তথ্য আপডেট করা, পোস্ট অফিসের একাউন্ট এবং পেমেন্ট ব্যাঙ্ক এর একাউন্ট একসাথে সংযুক্ত করা, এবং একাউন্টের সেটেলমেন্ট করা ইত্যাদি কাজ আপনারা বাড়িতে বসে করতে পারেন।

তবে এবার থেকে এই সমস্ত কাজ করার ক্ষেত্রে আপনাকে অতিরিক্ত চার্জ দিতে হবে। এই ধরনের ডোর স্টেপ ব্যাঙ্কিং পরিষেবায় কোন গ্রাহক একাধিকবার লেনদেন করতে পারবেন। এখানে কোনো রকম সর্বোচ্চ সীমা নেই। কিন্তু সেবার এই যদি অপর কোনো গ্রাহক তখন ডোর স্টেপ পরিসেবা গ্রহণ করেন তাহলে সেটা আলাদা পরিষেবা হিসেবে বিবেচিত হবে এবং লেনদেনের জন্য ওই গ্রাহককে টাকা দিতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে আইপিপিবি।

Related Articles

Back to top button