দেশনিউজ

সুখবর! ৪৯ শতাংশ মহিলারা সেনাবাহিনীতে পার্মানেন্ট কমিশন পাবেন

Advertisement

নয়াদিল্লি: ভারতের সেনাবাহিনীতে মহিলা সেনাদের জন্য সুখবর।গত জুলাই মাসে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রকের তরফ থেকে মহিলাদের সেনাবাহিনীতে পার্মানেন্ট কমিশন দেওয়ার আনুষ্ঠানিক ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছিল। তারপর এতগুলো মাস কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত পার্মানেন্ট কমিশন দেওয়া হয়নি। তবে দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। দেওয়ার কাজ একটু একটু করে এগোচ্ছে বলেই কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রক জানিয়েছে। গতকাল, বৃহস্পতিবার এ প্রসঙ্গে সেনাবাহিনীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, ভারতীয় সেনাবাহিনীর ৪৯ শতাংশ মহিলাদের পার্মানেন্ট কমিশন দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে ২০ বছরের পর মহিলারা অবসর নিতে পারবেন বলে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রক জানিয়েছে।

এই পার্মানেন্ট কমিশনে যেসব মহিলাদের নাম নথিভুক্ত করা হবে, সেসব মহিলারা আরও বেশি দিন ধরে সেনাবাহিনীতে কাজ করতে পারবেন এবং সেটা নির্দিষ্ট কোনও গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত হয়ে কাজ করতে হবে। শট সার্ভিস কমিশনের আয়তায় থাকা কতজনকে স্থায়ী কমিশনের আয়তায় দেওয়া হবে, তা সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য একটি বোর্ড গঠন করা হয়েছিল। সেই বোর্ডে ৬১৫ জনের নামের তালিকা প্রকাশ করা হয়। গত জুলাই মাস থেকে সেনাবাহিনীর দশটি গুরুত্বপূর্ণ বিভাগে নিযুক্তদের পার্মানেন্ট কমিশনে দেওয়ার কাজ শুরু হয়।

এই দশটি গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ হল, আর্মি এয়ার ডিফেন্স, সিগন্যালস, ইঞ্জিনিয়ারস, আর্মি অ্যাভিয়েশন, ইলেকট্রনিক্স ও মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারস, আর্মি সার্ভিস কোর, আর্মি অর্ডিন্যান্স কোর এবং ইন্টেলিজেন্স কোর। তবে সেনাবাহিনীতে মহিলাদের পার্মানেন্ট কমিশন দেওয়ার বিরোধিতা করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। যদিও সেই বিরোধিতাকে আমল না দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়েছিল যে, সেনাবাহিনীতে কর্মরত মহিলাদের পার্মানেন্ট কমিশন দেওয়া হবে। সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মহিলারা কত বছর সেনাবাহিনীতে আছেন, তা বিবেচ্য করার প্রয়োজন নেই। যদিও শারীরিক সীমাবদ্ধতা এবং সামাজিক নিয়মের যুক্তি দেখিয়ে কেন্দ্র সুপ্রিমকোর্টকে প্রণোদিত করতে চেয়েছিল। কিন্তু তা পেরে ওঠেনি। সুপ্রিমকোর্ট’ নিজের রায়ে অনড় ছিল। যার জেরে আগামী দিনে সেনাবাহিনীতে কর্মরত মহিলারা পার্মানেন্ট কমিশন পেতে চলেছেন।

Tags

Related Articles

Back to top button