×
দেশনিউজ

লাদাখে চীনের দাদাগিরি রুখতে আজ গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসছে ভারতীয় বায়ুসেনা

শুধুমাত্র লাদাখের চীন সীমান্তই নয় একইসাথে সিকিম, অরুণাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের চীন সীমান্তের অবস্থা নিয়েও এই বৈঠকে আলোচনা হতে পারে।

Advertisement

লাদাখ সীমান্ত নিয়ে বিবাদের মাঝেই আজ বুধবার গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসছে ভারতীয় বায়ুসেনা। পূর্ব লাদাখের পরিস্থিতি এখনও উত্তপ্ত, এই অবস্থায় পূর্ব লাদাখে বায়ুসেনার বিমান ঘাঁটিতে রাফাল সহ একাধিক যুদ্ধবিমান এবং ট্যাঙ্ক মোতায়েন করেছে ভারত। পূর্ব লাদাখের পরিস্থিতি পর্যালোচনা, রাফালের সংখ্যাবৃদ্ধির গুরুত্ব, চীনা সেনার অবস্থান সহ একাধিক বিষয়ে এই বৈঠকে আলোচনা হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। এই বৈঠকের মূল বিষয় ভারতীয় বায়ুসেনার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার পর্যালোচনা।

Advertisement

জানা যাচ্ছে, শুধুমাত্র লাদাখের চীন সীমান্তই নয় একইসাথে সিকিম, অরুণাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের চীন সীমান্তের অবস্থা নিয়েও এই বৈঠকে আলোচনা হতে পারে। ইতিমধ্যেই রাফাল সহ একাধিক অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান মোতায়েন করা হয়েছে লাদাখে। আরও যুদ্ধবিমান মোতায়েন করা হবে কিনা বা পরবর্তীতে কিভাবে পরিস্থিতির উপর নজর রাখা হবে সেই সমস্ত বিষয়েই আলোচনা হবে বায়ুসেনার আজকের বৈঠকে।

সূত্রের খবর, বায়ুসেনার এই বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। এছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন এয়ার চিফ মার্শাল আর কে এস ভাদোরিয়াও। চীনের সাথে সীমান্ত বিবাদ শুরু হওয়ার পর থেকে পূর্ব লাদাখ সেক্টরে নাইট টাইম কমব্যাট এয়ার পেট্রোলিং চালানো হচ্ছে বায়ুসেনার তরফে। রাফাল ছাড়াও সুখোই ৩০ এমকেআই ফাইটার জেট, জাগুয়ার, মিরাজ ২০০০ এর মতো যুদ্ধবিমান মোতায়েন করা হয়েছে লাদাখ সীমান্তে।

Advertisement

লাদাখের বেশিরভাগ এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নিলেও এখনও কয়েকটি এলাকা থেকে সেনা সরায়নি চীন। প্যাংগংয়ের ফিঙ্গারস থেকে এখনও সেনা সরায়নি চীন। এই সমস্ত কিছু মিলিয়ে পূর্ব লাদাখের পরিস্থিতি এখনো খুব একটা সুবিধাজনক জায়গায় নেই। তাই পূর্ব লাদাখ এবং ভারতের সাথে চীনের অন্যান্য সীমান্ত গুলিতে বায়ুসেনার ভূমিকা নিয়ে আলোচনা হবে এই বৈঠকে।

Related Articles

Back to top button