নিউজপলিটিক্সরাজ্য

কম করে হলেও আমি ১০০ টা চিঠি লিখেছি, তবুও রাস্তা সংস্কার করা হয়নি, বিস্ফোরক গৌতম দেব

গৌতম দেবের (Goutam Deb) দাবি, উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ (Rabindranath Ghosh) উত্তরবঙ্গের রাস্তাগুলির কোনো সংস্কার করেন নি।

×
Advertisement

রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দলের বিরুদ্ধে আবারো সরব হলেন পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব (Goutam Deb)। নাম না করে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ (Rabindranath Ghosh) কে আক্রমণ করে শুক্রবার গৌতম বাবু বলেছেন,” আমি মন্ত্রী থাকার সময় প্রচুর কাজ হয়েছিল। তবে এখনও অনেক রাস্তা রয়েছে যেগুলোর সংস্কার করা হয়নি।১০০টি চিঠি আমি সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠিয়েছিলাম। কিন্তু তার পরেও কোনো কাজ হয়নি।”

Advertisement

রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এবং গৌতম দেবের মতপার্থক্য কিন্তু নতুন কোন বিষয় নয়। প্রায় সময়ই তাদের মতের অমিল দেখা যায়। তবে এবারে গৌতম দেব বলেছেন,” ২০১১ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত যে সমস্ত রাস্তাগুলো করেছি আজ সেগুলোর অবস্থা বেহাল। এর আগে বারে বারে রাস্তা সংস্কার করার কথা বলা হয়েছিল। কম করে হলেও আমি ১০০এর বেশি চিঠি লিখেছে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরে। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।” তিনি বলেছেন, বাধ্য হয়ে আমি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) কে চিঠি লিখেছিলাম। সঙ্গে সঙ্গে একদিনের মধ্যে তিনি ব্যবস্থা নিয়েছেন।

জানিয়ে রাখি, ২০১১ এর ২০ মে থেকে ২০১৬ ১৯ মে পর্যন্ত উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী ছিলেন গৌতম দেব। এরপর তাকে দেওয়া হয় পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন দপ্তরের দায়িত্ব। সেই প্রসঙ্গে গৌতম দেব বলেছেন, তার সময় কালে উত্তরবঙ্গে বহু কাজ করা হয়েছিল। কিন্তু এখন কোন কাজ হয়না। অনেক সেতু তিনি তৈরি করেছেন এবং আন্ডারপাসের কাজ অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু ২০১৪ সাল পর্যন্ত যে সমস্ত রাস্তা তিনি তৈরি করেছেন সেগুলি বর্তমানে ভেঙে গিয়েছে। বারবার বলা স্বত্বেও উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর ওই সমস্ত রাস্তার উন্নয়ন করেনি।

Advertisement

তার দাবি তিনি একাধিকবার উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের চিঠি লিখে আর্জি জানিয়েছেন। কিন্তু, সেই দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এই ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি বলে তার দাবি। যদিও মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এর কাছ থেকে এখনো পর্যন্ত এই নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

Related Articles

Back to top button