বলিউডবিনোদন

Krushna Abhishek: মামার নাম করে জনপ্রিয়তার শিখড়ে বিখ্যাত কমেডিয়ান ক্রুষ্ণা! বিষ্ফোরক মন্তব্য গোবিন্দা-জায়া



এই সপ্তাহে কপিল শর্মা শোয়ের নতুন পর্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়েছিলেন সুপারস্টার গোবিন্দা এবং তার গোটা পরিবার। এর আগেও বহুবার এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকেছেন দুই তারকা। তবে এবারে এই জুটির উপস্থিতি জল্পনা কল্পনার বিষয় ছিল অত্যাধিক। কারণ এই শোয়ের অন্যতম কমেডিয়ান ক্রুষ্ণা অভিষেক যিনি সম্পর্কে গোবিন্দার ভাগ্নে হন। মামা ভাগ্নের সম্পর্ক হয়েও তিনি উপস্থিত ছিলেন না শ্যুটিং ফ্লোরে।

আসল ব্যপার হল ক্রুষ্ণা অভিষেক ও গোবিন্দার মধ্যে দীর্ঘদিনের বিতর্ক আপাতত সকলেরই জানা। তিন বছর আগে ক্রুষ্ণার স্ত্রী কাশ্মীরা শাহ-র একটি টুইট নিয়ে তোলপাড় হয় মায়ানগরী। তিনি লিখেছিলেন, “যে সব তারকারা পয়সার জন্য নাচে’. কিন্তু কেন এরুপ তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে এরুপ বার্তা দেন তা জানা যায়নি। অবশ্য এই বার্তা দেখে গোবিন্দা জায়া সুনীতা আহুজা ক্ষুব্ধ হন। তিনি বলেন তাঁর স্বামী গোবিন্দাকে লক্ষ করেই এই টুইট। তারপর থেকেই দুই পরিবারের মুখ দেখাদেখি পুরোপুরি বন্ধ।

সম্প্রতি ‘দ্য কপিল শর্মা শো’-তে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গোবিন্দা ও সুনীতা। কিন্তু সেই পর্বের জন্য বিশেষত শ্যুট করেননি ক্রুষ্ণা। অবশ্য এই প্রসঙ্গে কমেডিয়ান ক্রুষ্ণা এক সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছিলেন, ‘তাঁর বিশ্বাস দু’ তরফেই একসঙ্গে স্টেজ শেয়ার কোনোভাবে করতে চায় না।’ আর ভাগ্নের এই মন্তব্যই কিছুতে মেনে নিতে পারেননি মামি সুনীতা। বরং এই পারিবারিক ঝামেলা ফের একবার বাইরে সামনে আসায় বেশ বিরক্ত সুনীতা।

তিনি জানিয়েছেন, ‘ ক্রুষ্ণা নাকি আমার মামা এই, আমার মামা ওই করেই তো জনপ্রিয়তা পেয়েছে? ওর নিজের কোনও যোগ্যতা নেই?’ সুনিতা আরো গোবিন্দা আরো জানান, ‘আগেরবারও তিনি যখন কপিলের শো-তে গিয়েছিলেন তখনও তিনি ছিলেন না। কিন্তু সেই এপিসোডও বেশ হিট হয়েছিল। জানি এটাও হবে। ও ছাড়া শো চলবে না এমনটা কিন্তু নয়। গোবিন্দা আগের বছরই অফিসিয়ালি সকলকে জানিয়ে দিয়েছে পারিবারিক বিষয় নিয়ে ও কথা বলবে না মিডিয়ার সামনে। সেখানে ক্রুষ্ণার তরফ থেকে বারংবার একই কাজ করা হচ্ছে।’

সুনীতা আরও জানান, ‘তাঁর শাশুড়ি মারা যাওয়ার পর যদি তাঁদেরকে না রাখতাম, তাহলে কী হত? যার জন্য তাঁরা বড় হল, তাঁকে নিয়েই প্রকাশ্যে সমালোচনা করছেন। অন্তত তিনি বেঁচে থাকতে এই সমস্যা মিটবে না! তিনি এই স্পষ্ট বলেজ তিনি আর ওদের কারও মুখ দেখতে চান না।’ তবে কি সত্যিই ইতি পড়ল মামা-ভাগ্নের সম্পর্কের। নাকি পরে সব ঠিক হয়ে যাবে।

Related Articles

Back to top button