অফবিট

আজ মাতৃদিবস, এই দিনটি কেন পালিত হয়? জেনে নিন তার অজানা ইতিহাস

এই পার্থিব অস্তিত্বের সব টুকু সুখ ও আনন্দ বোধ করি “মা” শব্দে লুকিয়ে আছে। সৃষ্টির প্রথম শব্দ “মা”, যা একটি শিশু উচ্চারণ করে থাকে। প্রথম আলোর দর্শন মাকে অনুসরণ করেই। প্রথম স্পর্শ, প্রথম পথ চলা , প্রথম কথা বলা এই পার্থিব জননীর ছত্র ছায়াতেই প্রতিপালিত হয়ে থাকে!তাই আজকের এই দিবসটি শুধুমাত্র তাঁকে ঘিরেই, তাঁকে সন্মান জ্ঞাপন করে!

আমরা যদি একটু পেছন ফিরে তাকাই, তবেই বুঝতে পারব এই মাতৃদিবসের গুরুত্ব, এর তাৎপর্য। ইতিহাসের পাতা বলে “গৃহ যুদ্ধের” পরবর্তী সময়ে এন জার্ভিস বন্ধুত্ব জাগিয়ে তোলবার এক প্রয়াস করেন, যুদ্ধের দুই পক্ষের মায়েদের মধ্য! ১৮৬৮ সাল, এন একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠিত করেন। সাথে প্রতিষ্ঠিত হয় ” মাতৃ বন্ধুত্ব দিবস”। এন জার্ভিস এই দিবসটিকে এক “অন্তরঙ্গ” দিবস রূপে স্বীকৃতি ও দিয়েছিলেন উনি!অবশেষে ১৯০৮ এ প্রথম “মাতৃদিবস” পালিত হয়।পূর্ণ হয়ে সঙ্কল্প তাঁর। পূর্ণ হয়ে স্বপ্ন তাঁর।

কিন্তু এই আনন্দ বাতাবরণের মাঝে ঘটে যায় এক ঘটনা। দিবসটিকে এক নিছক বাণিজ্যিক রূপ দিতে, শুরু হয় ক্যান্ডিজ, কার্ডস ও ফুল বিক্রয়। উদ্দেশ্য একটাই- জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণ করা। কথাটি এন এর কানে পৌঁছায়। এলিয়েনের রুশভেল্টকে এক তীব্র তিরস্কারের সম্মুখীন হতে হয়, চাঁদা তোলবার অপরাধে! পরিশেষে এন জার্ভিস তাঁর সমস্ত অর্থ ব্যয় করলেন তাঁর এই যুদ্ধে এবং মাত্র ৮৪ বছর বয়সে পরলোক গমন করেন।

মাতৃদিবসের এই পুণ্য লগ্নে মূলত দুটি রং ব্যবহার করা হয়: লাল ও সাদা।এর প্রকৃত অর্থ হল, লাল জীবিত মায়েদের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয় এবং অপরটি যারা আজ এই ইহলোকে নেই।উল্লেখ্য গ্রীক সম্প্রদায়ের মানুষের দ্বারা ঈশ্বরী রিহি পূজিত হন এই দিনে। এই দিন ১৮০ ডলার ব্যয় করা হয় উপহার কেনার জন্য।

৪.৬বিলিয়ন ডলার ব্যয় করা হয় জুয়েলারি কেনায় এবং ৪.৪বিলিয়ন ডলার ব্যয় হয়ে থাকে নৈশ,প্রভাত ও দ্বিপ্রহর ভোজের জন্য।পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গা যেমন ইউএস,থাইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জর্জিয়া ইত্যাদি।১২২ মিলিয়ন কলস করা হয়ে থাকে আজকের এই বিশেষ দিনে!এই মাতৃত্বেই পূর্ণতা আসে নারীর।এই সৃষ্টির স্রষ্টা, ধারক ও বাহক। তবে প্রত্যাশা একটাই: দিবসটির সাথে যেন তার শপথগুলোও পালন করা হয়!!

– কুণাল রায়।

Related Articles

Back to top button