নিউজরাজ্য

শহরে আবারো ভুয়ো আধিকারিক, প্রতারিতদের অভিযোগে গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

গান শেল ফ্যাক্টরিতে চাকরি করিয়া দেওয়ার নাম করে প্রতারণা চক্র খুলে বসে ছিল কার্তিক শীল



আবার কলকাতায় জালিয়াতি চক্র। গান শেল ফ্যাক্টরিতে চাকরি করিয়ে দেওয়ার নামে কয়েক লক্ষ টাকা প্রতারণা করে শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত। অভিযুক্ত নিজেকে অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরি বোর্ডের বড় আধিকারিক বলে দাবি করত। লোকটির নাম কার্তিক শীল। জানা গিয়েছে একাধিক ব্যক্তিকে কাশিপুর গান শেল ফ্যাক্টরিতে চাকরি করিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় কার্তিক।

চাকরি দেওয়ার নাম করে কয়েক লক্ষ টাকা প্রতারণা করে অভিযুক্ত কার্তিক। প্রতারিতদের হাতে ভুয়ো নিয়োগপত্র পর্যন্ত ঐ লোকটি পৌঁছে দিয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত চাকরি না হওয়ায়, অভিযুক্তের বাড়িতে হানা দেয় প্রতারিতরা। ৫ লক্ষ টাকা ফেরত দেওয়ার দাবি জানায় তারা। তবে ওই টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করে অভিযুক্ত। তারপরেই পর্দা ফাঁস হয় ওই আধিকারিকের।

পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্তের কাছ থেকে একটি নীল বাতি লাগানো গাড়ি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ওই ব্যক্তিকে বড়তলা থানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে করেয়া থানার পুলিশ। ধৃতকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে খবর। পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, হয়তো এই চক্রের সঙ্গে শুধুমাত্র কার্তিক নয় আরও অনেকে জড়িত থাকতে পারে। তাই বাকিদের খোঁজ চালানোর জন্য ওই ব্যক্তিকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, মাস কয়েক আগে থেকেই কসবার ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্প থেকে এই জালিয়াতির জাল খুলতে শুরু করে। যাদবপুরে তৃণমূল সাংসদ মিমি করোনা ভ্যাকসিন পাওয়ার পরে তার কাছে কোন মেসেজ না আসার কারণে এই জালিয়াতি কাণ্ডের প্রথম পর্দা ফাঁস হয়। গ্রেফতার হয় দেবাঞ্জন দেব। তারপর থেকেই ধীরে খুলতে শুরু করেছে এই জালিয়াতি কাণ্ডের ফাঁস। এই তালিকাটি নবতম সংযোজন অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরি বোর্ডের জাল আধিকারিক কার্তিক শীল। তিনি কোন ভাবে আগে গ্রেপ্তার হওয়া কারো সাথে জড়িত কিনা কিংবা তার সাথে কোন বড় নেতার যোগাযোগ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখার জন্য তাকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করছে কলকাতা পুলিশ।

Related Articles

Back to top button