বলিউডবিনোদন

Farrukh Jaffar: প্রয়াত গুলাবো সিতাবো’র বিগ বি’র অনস্কিন বেগম, প্রবীণ অভিনেত্রী ফারুক জাফর

ফের বলিউডে খারাপ খবর। শুক্রবার লখনউতে মস্তিষ্কের স্ট্রোক হয়ে অভিনেত্রী ফারুর জাফর চিরতরে না ফেরার দেশে পাড়ি দেন। মৃত্যুকালে বর্ষীয়ান অভিনেত্রীর বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। ফারুক জাফরের মৃত্যু খবরটি তাঁর নাতি শাহ আহমেদ সকলকে দেন। ‘গুলাবো সিতাবো’ এবং ‘সুলতান’ -এর মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন।
অভিনেত্রীর বড় মেয়ে মেহেরু পিটিআঅকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান, ‘গত ৪ অক্টোবর শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা নিয়ে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তিনি অনেকদিন ধরে বয়সজনিত কারণে অসুস্থ ছিলেন। অক্সিজেন টানতে পারছিলেন না। এদিন সন্ধ্যে ৭ টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি’।

অভিনেত্রীর নাতি শাহ আহমেদ সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে বলেন, শনিবার আয়িসবাঘ কবরস্থানে ডাডির শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।” প্রয়াত অভিনেত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, তিনি শাহগঞ্জের চকেশ্বর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। প্রাথমিক পড়াশোনার শেষ করে তিনি লখনউতে আসেন। প্রাক্তন বিধান পরিষদ সদস্য তথা উত্তরপ্রদেশে প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি এসএম জাফরের সঙ্গে বিয়ে হয় তাঁর। লখনউ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হয়ে ১৯৬৩ সালে অল ইন্ডিয়া রেডিওতে কাজ শুরু করেন। 

১৯৮১ সালে ক্লাসিক উমরাও জান দিয়ে পর্দায় জার্নি শুরু করেছিলেন তিনি। ছবিতে রেখার মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। পরে তিনি কিছু ধারাবাহিকে অভিনয় করেছিলেন। ২০০৪ সালে শাহরুখের স্বদেশে অভিনয় করেছিলেন। এছাড়াও ‘পিপলি লাইভ’, ‘সুলতান’, ‘তনু ওয়েডস মনু’ -র মতো বিগ প্রজেক্টে অভিনয় করেছিলেন। ২০১৯ সালে নারায়ণ চৌহানের ‘আম্মা কী বলি’ছবিতে তাঁকে মুখ্য চরিত্রে তাঁকে যায়। এছাড়া

 ৮৮ বছর বয়সেই ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডসে সেরা সহ অভিনেত্রীর পুরষ্কার পান তিনি। ফারুর জাফর শেষ অভিনয় করেন সুজিত সরকার পরিচালিত গুলাবো সিতাবোতে। এই সিনেমাতে মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চনের স্ত্রী ফতিমা বেগমের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। আর এই সিনেমাতে তাঁর অভিনয় ছিল দেখার মতো। অভিনেত্রীর চলে যাওয়াতে অনেকে শোক প্রকাশ করেছেন।

 

Related Articles

Back to top button